বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আমি খুশি তবে নেতাজির মূল্যবোধ পুনরুজ্জীবিত করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ : অনিতা বসু পাফ
অনিতা বসু পাফ (ছবি সৌজন্যে টুইটার/হিন্দুস্তান টাইমস)

আমি খুশি তবে নেতাজির মূল্যবোধ পুনরুজ্জীবিত করা বেশি গুরুত্বপূর্ণ : অনিতা বসু পাফ

  • নেতাজি কন্যা বলেন, ‘দিল্লিতে এমন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তাঁর মূর্তি স্থাপিত হবে জেনে আমি খুশি।’

নেতাজির মূল্যবোধ পুনরুজ্জীবিত করা আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ, তবে আমি খুশি : অনিতা বসু পাফ

নেতাজির ট্যাবলো বিতর্কের সময় মুখ খুলে তাঁকে নিয়ে রাজনীতি করতে বারণ করেছিলেন। আর এবার রাজধানীতে নেতাজির মূর্তি স্থাপনের ঘোষণায় নিজের আনন্দ প্রকাশ করলেন অনিতা বসু পাফ। নেতাজি কন্যা এই বিষয়ে বললেন, ‘দিল্লিতে এমন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তাঁর মূর্তি স্থাপিত হবে জেনে আমি খুশি। এখনকার তরুণ প্রজন্ম নেতাজিকে জানে এবং সম্মান করে তা জেনে ভালa লাগছে। একজন মানুষ যিনি তাঁর দেশের মঙ্গলের জন্য এত কষ্ট পেয়েছেন তাঁর জন্য এটা বড় সম্মান।‘

অনিতা আরও বলেন, ‘মূর্তি স্থাপন করে তাঁকে সম্মান জানানো দৃষ্টান্তমূলক। তবে যা আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে আমার মনে হয় তা হল, আজকের জীবনযাত্রায় এবং রাজনীতিতে নেতাজির মূল্যবোধ এবং চিন্তাধারাগুলিকে পুনরুজ্জীবিত করা এবং শক্তিশালী করা। তা শুধু রাজনীতিবিদদের জন্যই নয়, প্রতিটি পুরুষ ও মহিলার জন্য প্রযোজ্য হওয়া উচিত।’

এর আগে সাধারণতন্ত্র দিসবে ‌নেতাজিকে নিয়ে রাজ্যের পাঠানো ট্যাবলো বাতিল করায় কেন্দ্রের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন নেতাজির মেয়ে অনিতা বসু পাফ। অনিতা বলেছিলেন, ‘ওদের মনে রাখা দরকার, নেতাজি কিন্তু ছেলেখেলার পাত্র নন।’ এই ট্যাবলো বিতর্কের মাঝেই শুক্রবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নেতাজির মূর্তি স্থাপনের কথা ঘোষণা করেন। জানান, ইন্ডিয়া গেটে নেতাজির গ্রানাইটের মূর্তি স্থাপন করা হবে। টুইট বার্তায় মোদী লেখেন, ‘এই দেশ নেতাজির কাছে চির ঋণী থাকবে।’ সেই ঋণের প্রতীক হিসাবেই এই মূর্তি বসানো হবে বলে জানান মোদী।

 

বন্ধ করুন