বাড়ি > ঘরে বাইরে > সুনিশ্চিত নিরাপত্তার পথে আরও একধাপ, চলতি বছরে মারা যাননি কোনও রেলযাত্রী
যাত্রীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি নজরদারিতে জোর দিয়েছে রেল মন্ত্রক।
যাত্রীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি নজরদারিতে জোর দিয়েছে রেল মন্ত্রক।

সুনিশ্চিত নিরাপত্তার পথে আরও একধাপ, চলতি বছরে মারা যাননি কোনও রেলযাত্রী

  • রেলযাত্রায় যাত্রী নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার নজির গড়ল ভারতীয় রেল। সম্প্রতি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে একগুচ্ছ পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করার প্রক্রিয়া চালু করেছে রেল।

১৬৬ বছরের রেল-ইতিহাসে নজির তৈরি হল। ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে কোনও যাত্রীর মৃত্যু ঘটেনি বলে ঘোষণা করল ভারতীয় রেল।

বুধবার কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল টুইট করেছেন, ‘সর্বাগ্রে নিরাপত্তা: ১৬৬ বছরে এই প্রথম ভারতীয় রেলে যাত্রীমৃত্যুর সংখ্যা শূন্য, যা চলতি অর্থবর্ষে দেখা গিয়েছে।’

গত ৬ ডিসেম্বর দেশের সমস্ত রেল স্টেশনে উচ্চতম পর্যায়ের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এক আবেদনের ভিত্তিতে কেন্দ্রের জবাব তলব করে দিল্লি হাইকোর্ট।

নভেম্বর মাসে রেল মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে অত্যাধুনিক পরিকাঠামোযুক্ত প্রি-স্ট্রেসড স্লিপারযুক্ত (পিএসসি) রেলপথ, ৬০, ৯০ বা ততোধিক চূড়ান্ত টেনসিল শক্তি সমৃদ্ধ (ইউটিএস) রেল, পিএসসি স্লিপারের ফ্যান আকৃতির টার্নআউট, গার্ডার সেতুগুলিতে স্টিলের তৈরি চ্যানেল স্লিপার ব্যবহার করা হচ্ছে।

মন্ত্রকের তরফে আরও জানানো হয়েছে যে, বিপদের আগাম বার্তা পেতে আল্ট্রাসোনিক ফ্ল ডিটেক্টর-এর (ইউএফএসডি) সাহায্যে রেলপথ পরীক্ষা এবং তার ভিত্তিতে খুঁত মেরামতির সুবাদে ট্রেনের লাইনচ্যুতির সম্ভাবনা নির্মূল করে রেলপথের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার প্রক্রিয়া চালু হয়েছে।

এ সব ছাড়াও রেল সুরক্ষা ব্যবস্থা মজবুত করার লক্ষ্যে নিয়মিত নজরদারি চলেছে বলে জানিয়েছে রেল মন্ত্রক।

সম্প্রতি রেল বোর্ডের পরিকাঠামো এবং কাজের প্রক্রিয়ায় রদবদল ঘটিয়ে রেল প্রশাসনে আমূল পরিবর্তনে সচেষ্ট হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কাজে গতি আনতে কেন্দ্রীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক পরিষেবাও চালু করার অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্র।

বন্ধ করুন