ডাল লেকের চিত্র (AP)
ডাল লেকের চিত্র (AP)

ইন্টারেনেট ব্যবহারের অধিকার মৌলিক অধিকার নয়, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র

জম্মু-কাশ্মীরে ফোর-জি চালু করতে চায় না কেন্দ্র।

ইন্টারনেট ব্যবহার করার অধিকার মৌলিক অধিকারের মধ্যে পড়ে না বলেই সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরের প্রশাসন। প্রয়োজনে সেটির ওপর হস্তক্ষেপ করা যেতে পারে বলেই প্রশাসনের দাবি। কাশ্মীর উপত্যকায় ফোর-জি পরিষেবা চালুর দাবিতে শীর্ষ আদালতে দায়ের করা মামলায় নিজেদের হলফনামায় এই কথা বলল সরকার।

ভারতের অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব্য বজায় রাখার জন্য ও দেশকে নিরাপদ রাখার জন্যেই হাই-স্পিড ইন্টারনেট কাশ্মীরে চালু করা হচ্ছে না, বলে নিজেদের হলফনামায় বলেছে জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন। সংবিধান স্বীকৃত মৌলিক অধিকারের মধ্যে ইন্টারেনেট সার্ফ করার অধিকার পড়ে না বলে হলফনামায় জানিয়েছে কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলের প্রশাসন।

লকডাউনের সময় ফোর-জি ইন্টারনেট না থাকায় রোগী, পড়ুয়া, ব্যবসায়ীদের অসুবিধা হচ্ছে- এই অভিযোগে আদালতে মামলা হয়। সেই পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনকে নোটিস পাঠিয়েছিল আদালত। এর আগে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের জেরে উপত্যকায় মোবাইল ইন্টারেনেট চালু করতে বাধ্য হয় প্রশাসন। প্রসঙ্গত গত বছর ধারা ৩৭০ অবলুপ্ত হওয়ার সময় থেকে ইন্টারনেট বব্ধ ছিল জম্মু-কাশ্মীরে।

প্রশাসন জানিয়েছে যে ধীরে ধীরে ছাড় দেওয়া হয়েছে ওয়েবসাইট ব্যবহারের ক্ষেত্রে। কিন্তু হাইস্পিড ইন্টারেনেট দিলে সেটির অপব্যবহার হতে পারে। এই নিয়েই উদ্বিগ্ন কেন্দ্র। শীর্ষ আদালতকে কেন্দ্র জানিয়েছে যে পাকিস্তান চেষ্টা করছে কাশ্মীরে অশান্তি তৈরী করতে, তাই সেই নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে।



বন্ধ করুন