বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > BHU-তে সংঘর্ষে জড়াল দুই হোস্টেলের ছাত্ররা, পাথরের আঘাতে জখম এক পুলিশকর্মী সহ ৫
বিএইচইউ ক্যাম্পাসে পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী (ছবি সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)
বিএইচইউ ক্যাম্পাসে পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী (ছবি সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)

BHU-তে সংঘর্ষে জড়াল দুই হোস্টেলের ছাত্ররা, পাথরের আঘাতে জখম এক পুলিশকর্মী সহ ৫

  • BHU-র দুই হোস্টেলের ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষে পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটে বৃহস্পতিবার রাতে।

বারাণসী হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই হোস্টেলের ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষে পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটে বৃহস্পতিবার রাতে। ঘটনায় চার ছাত্র এবং এক পুলিশকর্মী জখম হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। গতরাতে ঘটনার সূত্রপাত হওয়ার পর আজও উত্তপ্ত বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে জখম পুলিশকর্মী হাতে এবং পায়ে আঘাত পেয়েছএন। বাকি ছাত্ররা ততটা গুরুতর ভাবে আঘাত পায়নি বলে জানানো হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজারাম হোস্টেলের ছাত্ররা প্রথম বর্ষের পড়ুয়াদের অফলাইন ক্লাস নিয়ে আলোচনা করছিল। সেই সময় বিড়লা হোস্টেলের ছাত্ররা সেখান দিয়ে যাচ্ছিল। তারা কিছু মন্তব্য করে রাজারাম হোস্টেলের ছাত্রদের উদ্দেশে। এর থেকে বাদানুবাদ শুরু হয়। পরে বিষয়টি হাতাহাতির পর্যায়ে চলে যায়। দুই পক্ষই একে অপরকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়তে শুরু করে বলে জানা যায়। দুই, তিনটি পেট্রল বোমাও ফাটানো হয় বলে খবর।

পরিস্থিতি সামাল দিতে ছাত্রদের সঙ্গে কথা বলতে যান চিফ প্রক্টর প্রফেসর আনন্দ চৌধুরী। প্রক্টর বোর্ডের বাকি সদস্যরাও যান ঘটনাস্থলে। তবে ছাত্ররা প্রফেসরদের কথা শুনতে চায়নি। তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে যান বিশ্ববিদ্যালয় আউটপোস্টে নিযুক্ত সাব-ইনস্পেক্টর রাজকুমার পান্ডে। তখন পাথরের আঘাতে তিনি জখম হন। পরবর্তীতে বিশাল পুলিশ বাহিনী পৌঁছায় ঘটনাস্থলে। এরপর ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আসে।

এদিকে দুই পক্ষের তরফেই পুলিশে অভিযগ দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাশী জোনের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার অমিত কুমার। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করেছেন চিফ প্রক্টর প্রফেসর আনন্দ চৌধুরী।

বন্ধ করুন