বাড়ি > ঘরে বাইরে > করোনা পরবর্তী উন্নয়নে ভারতকে ৩৪ কোটি ডলার সাহায্য আমেরিকার
ভারতীয় সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য মোট ৩৪ কোটি ডলার ঋণ ও বিনিয়োগ বরাদ্দ করল আমেরিকা।
ভারতীয় সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য মোট ৩৪ কোটি ডলার ঋণ ও বিনিয়োগ বরাদ্দ করল আমেরিকা।

করোনা পরবর্তী উন্নয়নে ভারতকে ৩৪ কোটি ডলার সাহায্য আমেরিকার

  • অনুমোদিত প্রকল্পগুলি ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও খাদ্য নিরাপত্তা পরিকাঠামোকে জোরদার করবে।

করোনা সংকট থেকে ঘুরে দাঁড়াতে ভারতীয় সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য মোট ৩৪ কোটি ডলার ঋণ ও বিনিয়োগ বরাদ্দ করল আমেরিকা। 

এই ঋণের অধিকাংশই সম্প্রতি আমেরিকার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন আর্থিক নিগমের (DFC) বোর্ড অফ ডিরেক্টর্স ঘোষিত আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকা ও ইন্দো প্যাসিফিক অঞ্চলে উন্নন বৃদ্ধির উদ্দেশে দেয় বরাদ্দ ঋণের অংশ।

এর মধ্যে রয়েছে রাজস্থানে বিদ্যুৎ পরিকাঠামো উন্নয়ন ও ৩০০ মেগাওয়াট সৌরশক্তি প্রকল্প গড়ার খাতে রিনিউ পাওয়ার সংস্থাকে বরাদ্দ ১৪.২ কোটি ডলার। এ ছাড়া ৫০ লাখ ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে সিতারা সোলার এনার্জি প্রাইভেট লিমিটেড-কে সৌরশক্তি প্রকল্প নির্মাণের জন্য। 

৫০ লাখ ডলার বরাদ্দ হয়েছে নর্দার্ন আর্ক ক্যাপিটাল লিমিটেড সংস্থাকে পানীয় জল, শৌচাগার নির্মাণ, খাদ্য উৎপাদন ও মহিলাদের আর্থিক স্বাধীনতার ক্ষেত্রে কর্মরত সংস্থাগুলিকে ঋণ দেওয়ার উদ্দেশে। 

গুজরাতে একটি ৫০ মেগাওয়াট সৌরশক্তি প্রকল্প গড়ে তোলার জন্য ২৭.৩ লাখ ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে পর্যাপ্ত সোলার এনার্জি প্রাইভেট লিমিটেড সংস্থাকে। একই সঙ্গে স্টুডেন্ট লোন প্রকল্পের জন্য ১৪.৬ লাখ ডলার ওয়ার্ল্ড বিজনেস ক্যাপিটাল ঋণ গ্যারান্টি বরাদ্দ হয়েছে। 

বলা হয়েছে, ক্ষুদ্র চাষিদের সাহায্যকারী সংস্থা মিল্ক মন্ত্র-কে ২.৭ লাখ ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে। এ বাদে ৩,৭১,০০০ ডলার মূল্যের প্রযুক্তিগত সাহায্য করা হবে এই সংস্থাকে পূর্ব ভারতে ডেয়ারিজাত পণ্য বিক্রির সহায়তায়। 

অনুমোদিত প্রকল্পগুলি ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও খাদ্য নিরাপত্তা পরিকাঠামোকে জোরদার করবে এবং অন্যান্য কার্যকরী উন্নয়নে সাহায্য করবে বলে মনে করছে DFC। ভারত ছাড়াও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকা ও দক্ষিণ আমেরিকায় একাধিক দেশকে করোনা পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সাহায্য করছে DFC।

বন্ধ করুন