ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের মধ্যে সৌজন্য বিনিময়। ছবি- এএফপি।
ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের মধ্যে সৌজন্য বিনিময়। ছবি- এএফপি।

Covid-19: করোনা মোকাবিলায় অর্থ সংগ্রহে ভারত-পাক ক্রিকেট সিরিজের প্রস্তাব আখতারের

  • করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য এই মুহূর্তে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট সিরিজ থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করা সম্ভব বলে মত প্রাক্তন পাক পেসারের।

রাজনৈতিক কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ।সীমান্তে পাক-সন্ত্রাস জারি থাকায় ভারত সরকার কোনওভাবেই সবুজ সংকেত দিতে রাজি নয় দু'দেশের ক্রিকেটীয় সম্পর্ক পুনঃস্থাপণে। রাজি নয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও। তাই PCB-র বারবার আবেদন সত্ত্বেও ইতিবাচক পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি BCCI-কে।

কেবলমাত্র বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপের মতো ICC ও ACC ইভেন্টগুলি ছাড়া ভারত-পাক ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়া আপাতত সম্ভব নয়। এই অবস্থায় প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব আখতার প্রস্তাব দিলেন নিছক মানবিকতার খাতিরে দু'দেশের মধ্যে একটি তিন ম্যাচের সীমিত ওভারের ক্রিকেট সিরিজ আয়োজনের।

আখতার মনে করেন, করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য এই মুহূর্তে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। ভারত-পাক ক্রিকেট সিরিজ থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করা সম্ভব। রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস এও মনে করেন যে, এতে দু'দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কেও উন্নতি হতে পারে।

আখতার বলেন, 'এমন সংকটের মুহূর্তে আমি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে একটা তিন ম্যাচের ক্রিকেট সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিতে চাই। যেখানে মাঠের ফলাফল যাই হোক না কেন, খুশি হবে দু'দেশেই। সম্ভবত প্রথমবার বিরাট কোহলি সেঞ্চুরি করলে পাকিস্তানের মানুষ খুশি হবেন। আবার বাবর আজম সেঞ্চুরি করলে ভারতীয়রা হতাশ হবেন না। মাঠে যাই ঘটুক না কেন, জিতবে দু'দলই।'

আখতার জানান, তড়িঘড়ি না হলেও পরিস্থিতি যখন একটু স্বাভাবিক হবে, তখন দুবাইয়ের মতো নিরপেক্ষ কেন্দ্রে এই সিরিজ আয়োজন করা যেতে পারে। সারা বিশ্বের মানুষ যেহেতু এখন বাড়িতে আটকে রয়েছেন, তাই প্রচুর মানুষ খেলা দেখবেন। ফলে পর্যাপ্ত পরিমাণে অর্থ সংগ্রহ করা যাবে এই সিরিজ থেকে। লভ্যাংশ দু'দেশের সরকারের মধ্যে সমান ভাগে ভাগ করে দেওয়া যাবে, যার ফলে উপকৃত হবেন দুই প্রতিবেশী দেশের সাধারণ মানুষ।

বন্ধ করুন