বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > মার্চেই বার্সা দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল, বেতন দেওয়ার টাকাও ছিল না, দাবি ক্লাবের CEO-র
বার্সেলোনা মার্চ মাসেই দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল।
বার্সেলোনা মার্চ মাসেই দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল।

মার্চেই বার্সা দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল, বেতন দেওয়ার টাকাও ছিল না, দাবি ক্লাবের CEO-র

  • বার্সেলোনার আর্থিক সঙ্কটের বিষয়টি সামনে আসে অগস্ট মাসে। যখন লিওনেল মেসিকে টিমে নিতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে তারা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মেসিকে ছেড়ে দিতে হয়। পিএসজি-তে যোগ দেন মেসি। এবং ক্লাব নিজেরাই তাদের আর্থিক দুর্গতির কথা স্বীকার করে নেয়।

বার্সেলোনার অবস্থা খুবই খারাপ, বা তারা যে দেনায় ডুবে রয়েছে, সে খবর নতুন কিছু নয়। বার্সার সিইও ফার্ন রিভার্টার বুধবার আবার দাবি করেছেন, ক্লাব মার্চ মাসের মধ্যেই কার্যত দেউলিয়া হয়ে গিয়েছে। মার্চ মাসে যখন প্রেসিডেন্ট জুয়ান লাপোর্তা দায়িত্ব নেন, তখন ক্লাবটি দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিল। আর এটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হলে, অনেক আগেই উঠে যেত।

বার্সেলোনার আর্থিক সঙ্কটের বিষয়টি সামনে আসে অগস্ট মাসে। যখন লিওনেল মেসিকে টিমে নিতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে তারা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মেসিকে ছেড়ে দিতে হয়। পিএসজি-তে যোগ দেন মেসি। এবং ক্লাব নিজেরাই তাদের আর্থিক দুর্গতির কথা স্বীকার করে নেয়।

রিভার্টের দাবি, ‘ক্লাব যদি পাবলিক লিমিটেড হত, তবে অনেক আগেই উঠে যেত। মার্চ ২০২১-এ যা পরিস্থিতি ছিল, তাতে আমাদের টেকলিক্যালি দেউলিয়া বলা যেতেই পারত। ক্লাব বলেই হয়তো আবার টাকা পেয়েছি। না হলে এমন অবস্থা হয়েছিল, ব্যাঙ্কে একটাও টাকা ছিল না। প্লেয়ারদের বেতন দেওয়ার টাকাটাও ছিল না।’

এই পরিস্থিতি সামলাতে ৯০ দিনের জন্য স্বল্প মেয়াদের ধার নিয়েছিলেন ক্লাবের কর্তারা। প্রায় ৮০ মিলিনয় ইউরো ধার নিয়েছিল ক্লাব। বার্সেলোনা জানিয়েছিল, গত মরশুমে তাদের ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতি হয়েছে।

বন্ধ করুন