বাংলা নিউজ > ময়দান > অপছন্দের ক্লে কোর্টেও দুরন্ত ছন্দে ফেডেরার, পৌঁছলেন রোলাঁ গারোর তৃতীয় রাউন্ডে
ম্যাচের পর সৌজন্য বিনিময় রজার ফেডেরার ও মারিন চিলিচের। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
ম্যাচের পর সৌজন্য বিনিময় রজার ফেডেরার ও মারিন চিলিচের। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

অপছন্দের ক্লে কোর্টেও দুরন্ত ছন্দে ফেডেরার, পৌঁছলেন রোলাঁ গারোর তৃতীয় রাউন্ডে

  • চার সেটের লড়াইয়ে মারিন চিলিচকে হারান ফেডেরার।

প্রথম সাক্ষাৎ হওয়ার ১৩ বছর পরেও মারিন চিলিচের বিরুদ্ধে রজার ফেডেরার আধিপত্য বজায় থাকল। দুই ঘন্টা ৩৫ মিনিটের ম্যাচের ক্রোয়েশিয়ান প্রতিপক্ষকে ৬-২, ২-৬, ৭-৬(৪), ৬-২-এ হারিয়ে ম্যাচ জিতলেন রেকর্ড গ্র্যান্ডস্ল্যাম (যুগ্মভাবে) জয়ী টেনিস তারকা।

চিলিচের বিরুদ্ধে এ বারের রোলাঁ গারোর সবচেয়ে সিনিয়র পুরুষ সিঙ্গলস খেলোয়াড় ফেডেরার এই নিয়ে ১১ ম্যাচে ১০ নম্বর বার জিতলেন। এর আগে বাকি সব গ্র্যান্ডস্ল্যামে মুখোমুখি হলেও প্যারিসে এই প্রথমবার দুই অভিজ্ঞ টেনিস তারকা একে অপরের বিরুদ্ধে কোর্টে নামেন। প্রথম সেটের পর ক্রোট তারকা দুরন্তভাবে ম্যাচ ফিরলেও, নিজের মনোযোগ ধরে রেখে শেষ হাসি হাসলেন বিশ্বের প্রাক্তন এক নম্বর টেনিস তারকাই।

ম্যাচের পর ফেডেরার বলেন ‘প্রথম দুই সেটে নিজের সেরা দিতে না পারলেও তৃতীয় সেটে আবার আমি ছন্দ ফিরে পাই। মুশকিল পরিস্থিতিতে ওর (চিলিচ) বিরুদ্ধে নিজের খেলাটা ধরে রেখে এবং তারপরে একধাপ বাড়িয়ে ম্যাচ জেতাটা আমাকে অনেক আত্মবিশ্বাস জোগাবে।’

ম্যাচের মধ্যে অস্বভাবোচিত ভঙ্গিমায় চেয়ার আম্পায়রের সঙ্গে তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন ফেডেরার। তৃতীয় সেটে নিজের অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে ১-৩ এগিয়ে থাকা চিলিচের ছন্দ নষ্ট করতেই খানিকটা বেশি সময় নিয়ে তোয়ালে দিয়ে মুখ মোছেন ফেডেরার। আম্পায়ার তাঁকে সতর্ক করতেই ক্ষুব্ধ ফেডেরার তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন।

ম্যাচের পর অবশ্য সেই বিষয়ে বেশি ভাবতে নারাজ টেনিস কিংবদন্তি। বরং তিনি মজার ছলে বলেন, ‘ব্যাপারটি কিন্তু বেশ মজারই ছিল। ঘটনাটি ম্যাচকে আলাদা উত্তেজনা প্রদান করে। মনে হয় ট্যুরের নতুন নিয়মগুলি আমার কাছে নতুন বলেই ওই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।’ পরবর্তী রাউন্ডে ফেডেরারের প্রতিপক্ষ বিশ্বের ৫৯ নম্বর টেনিস খেলোয়াড় জার্মান ডমিনিক কোয়েপফার।

বন্ধ করুন