বাংলা নিউজ > ময়দান > 'মক' সুপার ওভারেও হিট রিচা ঘোষরা! ওয়ার্ম-আপ ম্যাচের পর হারালেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে

'মক' সুপার ওভারেও হিট রিচা ঘোষরা! ওয়ার্ম-আপ ম্যাচের পর হারালেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে

স্কোরকার্ডের বিভ্রান্তির মধ্যেই ওয়ার্ম-আপ ম্যাচের পর সুপার ওভারে খেলল ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে টুইটার @BCCI)

ম্যাচে স্কোরকার্ড বিভ্রাট হয়েছিল।

স্কোরকার্ডের বিভ্রান্তির মধ্যেই ওয়ার্ম-আপ ম্যাচের পর সুপার ওভারে খেলল ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। সেই ‘মক’ সুপার ওভারে বাংলার রিচা ঘোষ এবং হরমনপ্রীত কৌরের সৌজন্যে জিতে গিয়েছে ভারতীয় মহিলা দল।

মহিলাদের ৫০ ওভার বিশ্বকাপের আগে রবিবার ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হন মিতালিরা। হরমনপ্রীত কৌরের ১০৩ রানের সৌজন্যে প্রথম ব্যাট করে ন'উইকেটে ২৪৪ রান তোলে ভারত। জবাবে সাত উইকেটে ২৪২ রানে থেমে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচের শেষে ‘মক’ সুপার ওভার খেলা হয়। তাতে প্রথম ব্যাট করে ন'রান করেন প্রোটিয়ারা। ভারতের হয়ে বল করেন মেঘনা সিং। সেই রান তাড়া করতে হরমনপ্রীত এবং রিচাকে পাঠিয়ে দেন মিতালিরা। পাঁচ বলেই ১০ রান তুলে ‘মক’ সুপার ওভারে জিতে যায় ভারত।

তবে সেই ওয়ার্ম-আপ ম্যাচের স্কোরকার্ডে রীতিমতো বিভ্রাট হয়। ম্যাচটি ভারত প্রথমে ‘হেরে গিয়েছিল।’ অন্তত গুগল ও আইসিসি ওয়েবসাইটে সেটাই দেখাচ্ছিল। যা নিয়ে তৈরি হয়েছিল চরম বিভ্রাট। পরে এই ম্যাচের অফিশিয়াল স্কোরার অরুণ কুমার টুইট করেন স্কোরকার্ড। তাতে দেখা যায় ভারত দু'রানে জিতে গিয়েছে। তারপরই আইসিসি স্কোরকার্ড আপডেট করে দেয়। প্রথমে স্কোরকার্ডে দেখাচ্ছিল যে দক্ষিণ আফ্রিকা শেষ বলে ভারতকে হারিয়ে দিয়েছে। পরে দেখা যায় ২৪৫ তাড়া করতে নেমে ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে ২৪২ রান করেন প্রোটিয়ারা।

স্কোরকার্ড নিয়ে বিভ্রাটের মাঝে ম্যাচার স্কোরার অরুণ কুমার টুইট করে লেখেন, ‘আইসিসি মহিলা বিশ্বকাপে ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে একটি প্রস্তুতি ম্যাচে আমি প্রথমবার স্কোরার হতে পেরে আনন্দিত।’ সঙ্গে তিনি নিজের একটি ছবি ও অফিশিয়াল স্কোরকার্ডের ছবি পোস্ট করেন। পরে আইসিসির ওয়েবসাইটে সংশোধন করা হয় ‘ভুল’। মহিলা ক্রিকেটের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলও পরে ম্যাচের ফল টুইট করে।

বন্ধ করুন