বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs NZ: ধুতে হবে জামাকাপড়, করতে হবে টয়লেট সাফ, কানপুর টেস্টে জৈব বলয় নিয়ে কড়াকড়ি BCCI-র
কানপুরের গ্রিন পার্ক স্টেডিয়াম।
কানপুরের গ্রিন পার্ক স্টেডিয়াম।

IND vs NZ: ধুতে হবে জামাকাপড়, করতে হবে টয়লেট সাফ, কানপুর টেস্টে জৈব বলয় নিয়ে কড়াকড়ি BCCI-র

  • ২৫ নভেম্বর কানপুরে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামবে ভারত ও নিউজিল্যান্ড।

১৭ নভেম্বর থেকে ভারতের মাটিতে শুরু হতে চলেছে ভারত-নিউজিল্যান্ড সিরিজ। এই সিরিজেই মাঠে ফের দর্শক ফেরানোর পরিকল্পনা রয়েছে। তবে পশ্চিমী দেশগুলিতে জৈব বলয়ের বন্ধনে কিছুটা ছাড় মিললেও ভারতে তেমনটা হচ্ছে না। কঠোর বলয়ের মধ্যে থেকেই দুই দলের ক্রিকেটারদের খেলতে হবে গোটা সিরিজ।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর ২৫ নভেম্বর কানপুরে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামবে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। টেস্ট সিরিজের জন্য ইতিমধ্যেই ভারতীয় দলের ঘোষণাও করে দিয়েছে বিসিসিআই। এবার ওই টেস্টে জৈব বলয়ের বিধিনিষেধও স্পষ্ট হয়ে গেল। জৈব বলয়ের মধ্যে খেলোয়াড়দের সুরক্ষা বজায় রাখতে তাদের নিজেদেরই জামাকাপড় ধোয়া থেকে টয়লেটের সাফাই, সবটাই করতে হবে। এমনকী ক্রিকেটারদের ঘরে কোনো হোটেলকর্মীও প্রবেশ করতে পারবেন।

দুই দলের ক্রিকেটারদের যে হোটেলে রাখা হবে, সেখানকার এক কর্তা জানান, ‘বিসিসিআই গোটা দুই ফ্লোর বুক করেছে। ম্যাচের সপ্তাহখানেক আগেই ওই দুই ফ্লোরে কাজ করা সমস্ত হোটেল কর্মীদের নিভৃতবাসে পাঠানো হবে।’ খেলোয়াড়দের এক সপ্তাহের জামাকাপড়ও আগে থেকেই রুমে রেখে দেওয়া হবে। সেই জামাকাপড়ও পৃথকভাবে আলাদা ব্যাগে রাখা হবে এবং ধোয়া হবে। তবে খেলোয়াড়রা তার অনুরোধ না করলে নিজেদেরই নিজেদের পোশাক ধুতে হবে। কিউয়ি দলের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তারা নিজেরাই নিজেদের সাফ সাফাই করে নেবেন এবং দলের কেউই খাওয়ার জন্য বাইরে আসবেন না। তাদের ঘরের সামনেই খাবার দিয়ে যাওয়া হবে।

কড়াকড়ি থাকবে স্টেডিয়ামেও। প্রথাগতভাবে ক্রিকেটারদের মাঠে বুফেতে খাবার পরিবেশন করা হবে না। তার বদলে জাপান থেকে আনানো বিশেষ বেন্টো বক্সে করে তাদের খাবার দাবার প্যাক করে দেওয়া হবে। উত্তর প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের মাঠের দায়িত্বে থাকা ডিরেক্টর ড. সঞ্জয় কাপুর জানান দুই দলের জৈব বলয়ে থাকার জন্য হোটেলটি সম্পূর্ণভাবে তৈরি।

বন্ধ করুন