বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: কীভাবে জোড়-বিজোড়ের সংস্কার ভাঙল মুম্বই, জানালেন কোচ জয়াবর্ধনে
আইপিএল ট্রফি হাতে মুম্বই। ছবি- টুইটার (MI)।
আইপিএল ট্রফি হাতে মুম্বই। ছবি- টুইটার (MI)।

IPL 2020: কীভাবে জোড়-বিজোড়ের সংস্কার ভাঙল মুম্বই, জানালেন কোচ জয়াবর্ধনে

  • প্রস্তুতিতে ধারাবাহিক থাকার মন্ত্রেই বাজিমাত, স্বীকার করলেন মাহেলা।

টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সবথেকে সফল দল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। তা সত্ত্বেও জোড়-বিজোড়ের সংস্কার চেপে বসেছিল সমর্থকদের মনে। মুম্বই প্রথম চারবার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয় বিজোড় সালে। ২০১৩ সালে প্রথমবার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হন রোহিতরা। মাঝে এক বছর করে বাদ দিয়ে আরও তিনবার তাঁরা খেতাব হাতে তোলেন। অর্থাৎ, ২০১৫, ২০১৭ ও ২০১৯ সালে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগের ট্রফি ঘরে তোলে পল্টনরা।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মাঠে নেমে মুম্বই এর আগে কখনও খেতাব ধরে রাখতে পারেনি। তাই ফেভারিট হওয়া সত্ত্বেও সবাই ধরে নিয়েছিল যে, সালটা যেহেতু জোড় সংখ্যার (২০২০), তাই মুম্বইয়ের পক্ষে এবার চ্যাম্পিয়ন হওয়া সম্ভব নয়।

মুম্বই কোচ মাহেলা জয়াবর্ধনে জানালেন, কীভাবে তাঁরা এই জোড়-বিজোড়ের সংস্কার কাটিয়ে ওঠেন। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় যথাযথ বিবরণ দিতে পারব। কাজটা সহজ ছিল না। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন তকমা নিয়ে মাঠে নামা সবসময় চাপের। তার উপর মুম্বই কখনও জোড় সংখ্যার বছরে আইপিএল জেতেনি। তাই আমাকে ক্রিকেটারদের একজোট করতে হতো। যেটা আমরা ক্রমাগত চেষ্টা করে গিয়েছি তা হল, প্রস্তুতিতে ধারাবাহিক থাকার। ছেলেদের নির্দিষ্ট ভূমিকায় অভ্যস্থ করতে চেয়েছিলাম। তার বেশ বা কম কোনও দিকেই নজর দিতে বারণ করেছিলাম। অবশ্যই এই বছরটা একটু অন্যরকম ছিল। তবে ছেলেরা আইপিএল উপভোগ করেছে।’

সুতরাং কোচের কথাতেই স্পষ্ট যে, জোড়-বিজোড়ের ভাবনা ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্দরমহলেও কাজ করত। যেটাকে কাটাতে পরিকল্পনা মাফিক এগতে হয় মুম্বইকে। শেষমেশ তারা খেতাব ধরে রাখতে সক্ষম হয়।

বন্ধ করুন