বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > CSK vs KKR: রাসেল, কামিন্সের লড়াই কাজে এল না, পুরনো রোগ সারাতে ব্যর্থ KKR
রান আউট হন প্রসিধ কৃষ্ণা, সব আশা শেষ হয়ে যায় কেকেআর-এর। ছবি: পিটিআই
রান আউট হন প্রসিধ কৃষ্ণা, সব আশা শেষ হয়ে যায় কেকেআর-এর। ছবি: পিটিআই

CSK vs KKR: রাসেল, কামিন্সের লড়াই কাজে এল না, পুরনো রোগ সারাতে ব্যর্থ KKR

  • বুধবার ওয়াংখেড়েতে টসে জিতে চেন্নাই সুপার কিংসকে ব্যাট করতে পাঠায় কলকাতা। ৩ উইকেট হারিয়ে ২২০ রান করে তারা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাঁচ বল বাকি থাকতেই ২০২ রানে অল আউট হয়ে যায় কেকেআর।

আটে ব্যাট করতে নেমে অপরাজিত ৩৪ বলে ৬৬ করেন প্যাট কামিন্স। সাতে ব্যাট করতে নেমে ২২ বলে ৫৪ করেছিলেন আন্দ্রে রাসেল। কিন্তু তাঁদের সব লড়াইকে ব্যর্থ করে ১৮ রানে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে হারল কলকাতা নাইট রাইডার্স। বুধবার ওয়াংখেড়েতে টসে জিতে চেন্নাই সুপার কিংসকে ব্যাট করতে পাঠায় কলকাতা। ৩ উইকেট হারিয়ে ২২০ রান করে তারা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাঁচ বল বাকি থাকতেই ২০২ রানে অল আউট হয়ে যায় কেকেআর।

এ দিনের হারের জন্যও নাইটদের চেনা রোগকেই দায়ী করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। এ দিন চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচের বিশ্লেষণ করতে গেলে নাইটদের হারের বেশ কিছু কারণ উঠে এসেছে, যার মধ্যে ইয়ন মর্গ্যানের বোলিং পরিবর্তন নিয়ে সিদ্ধান্তকে দুষছেন প্রাক্তন ক্রিকেটাররা।

১) বোলারদের ব্যর্থতা অব্যাহত। সেই সঙ্গে ইয়ন মর্গ্যানের বোলিং পরিবর্তন নিয়ে আরও এক বার প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। বরুণ চক্রবর্তী প্রথম ওভারে মাত্র ৪ রান দেন। তৃতীয় ওভারে বরুণের বদলে সুনীল নারিনকে নিয়ে আসেন। মাঝে দ্বিতীয় ওভারে প্যাট কামিন্স বল দেন মর্গ্যান। ১৫ রান দেন তিনি। চতুর্থ ওভারে ফের বরুণ চক্রবর্তীকে নিয়ে আসেন। কিন্তু পঞ্চম ওভারে নারিনকে বল দেননি কেকেআর অধিনায়ক। নারিন কিন্তু নিজের প্রথম ওভারে ৬ রান দিয়েছিলেন। পঞ্চম ওভারে প্রসিধ কৃষ্ণ বল করতে আসেন। বরুণ চক্রবর্তীর বদলে আবার ষষ্ঠ ওভারে প্যাট কামিন্সকে ফিরিয়ে আনেন। গোটা ম্যাচ জুড়েই বোলিং পরিবর্তনের ক্ষেত্রে এ রকম এলোমেলো সিদ্ধান্ত নিতে দেখা গিয়েছে মর্গ্যানকে। এর থেকেই পরিষ্কার বোলিং স্ট্র্যাটেজি নিয়ে কোন সঠিক পরিকল্পনাই নেই নাইট অধিনায়কের।

২) শুধু বোলিং পরির্তনই নয়, কোনও ম্যাচেই আলাদা কোনও স্ট্র্যাটেজি নিতে দেখা যাচ্ছে না কেকেআর-কে। ভীষণ এলোমেলো খেলছে দলটি। প্ল্যান-বি, সি বলে কিছুই ছিল না।

৩) ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপ দেওয়া অধিনায়কের কোনও আত্মবিশ্বাসই নেই। দলকে তাতানোর সেই আগুনটাই যেন উধাও। ধোনি নিজে সে ভাবে ফর্মে নেই, কিন্তু দলকে তাতিয়ে রেখেছেন। সেটা দলের বডিল্য়াঙ্গোয়েজেই পরিষ্কার।

৪) উপরের দিকে ব্যাটসম্যানরা এ দিন চূড়ান্ত ব্যর্থ। নীতিশ রানা, শুভমন গিল,  রাহুল ত্রিপাঠি, ইয়ন মর্গ্যানরা কেউই রান পাননি। দায়িত্বজ্ঞানহীন ভাবে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে তাঁরা চলে গিয়েছেন। ৩১ রানে ৫ উইকেট পড়ে গিয়েছিল কলকাতার।

৫) ইয়ন মর্গ্যান নিয়মিত চারে নামছেন। নিয়মতি ব্যর্থ হচ্ছেন। তবু ব্যাটিং অর্ডার পাল্টাচ্ছেন না। রাসেল বা কার্তিককে আগে নামালে হয়তো ফল অন্য রকম হতেই পারত।

বন্ধ করুন