বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা করে ভুল করেছেন বিরাট কোহলি:- গৌতম গম্ভীর
গৌতম গম্ভীর ও বিরাট কোহলি (ছবি:গেটি ইমেজ ও আইপিএল)
গৌতম গম্ভীর ও বিরাট কোহলি (ছবি:গেটি ইমেজ ও আইপিএল)

টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা করে ভুল করেছেন বিরাট কোহলি:- গৌতম গম্ভীর

  • টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়ে আরসিবির বিপদ আরও বাড়ালেন বিরাট কোহলি! এমনই মত ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রাক্তন অধিনায়াক গৌতম গম্ভীর।

টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়ে আরসিবির বিপদ আরও বাড়ালেন বিরাট কোহলি! এমনই মত ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রাক্তন অধিনায়াক গৌতম গম্ভীরের। কয়েকদিন আগেই জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব নিয়ে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছিলেন বিরাট। তিনি বলেছিলেন, আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি মঞ্চে আসন্ন টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে আর তিনি দেশের হয়ে নেতৃত্ব দেবেন না। বলা হয়েছিল নিজের খেলায় ফোকাস করার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিরাট। এবার আইপিএল-এ আরসিবির হয়েও অধিনায়কত্ব করতে চাননা তিনি। দুবাইয়ে মাঠে নামার আগে তিনি জানিয়েদিলেন এটাই তার অধিনায়ক হিসাবে শেষ আইপিএল। পরের মরশুমে তিনি ব্যাঙ্কালোরের হয়ে নামবেন কিন্তু নেতৃত্ব করবেন না। এই সিদ্ধান্ত মানেত পারেননি গৌতম গম্ভীর। 

আইপিএলে বিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব নিয়ে এমনিতেই সমালোচকরা প্রশ্ন তুলতেন। এমন পরিস্থিতিতে, আইপিএল ২০২১ এর পরে বিরাটের আরসিবির কমান্ড ছাড়ার সিদ্ধান্ত প্রশ্নচিহ্ন রেখেছে। রবিবার রাতে চেন্নাই সুপার কিংস এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের মধ্যে দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচের পর স্টার স্পোর্টস প্রোগ্রামের সময় গম্ভীর বলেছিলেন যে দ্বিতীয় পর্ব শুরু হওয়ার আগে বিরাটের আরসিবি অধিনায়ক পদ থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়া উচিত ছিল না। তার এটা করা দলের পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলবে। বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বের অধীনে আরসিবি -র পারফরম্যান্স আইপিএল ১৪ -তে দুর্দান্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত খেলা সাতটি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতে জয়ের পর পয়েন্ট টেবিলে তৃতীয়স্থানে রয়েছে তারা। প্লে -অফে পৌঁছানোর জন্য তাদের কমপক্ষে তিনটি ম্যাচ জিততে হবে। এমন অবস্থায় তাঁর এই সিদ্ধান্ত দলের উপর প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করেন গম্ভীর।

চলতি মরশুমের পর বিরাটের অধিনায়কত্ব ছাড়ার কথা শোনার পরে প্রতিক্রিয়া দিয়ে গম্ভীর বলেন, ‘বিরাট কোহলির এই সিদ্ধান্ত সাহসী। কিন্তু টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ার পরেও তিনি এই ঘোষণা করতে পারতেন। বর্তমানে তার দল ভালো অবস্থায় আছে। কিন্তু তার অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা খেলোয়াড়দের মানসিকভাবেও প্রভাব ফেলতে পারে, যা তাদের খেলাকে প্রভাবিত করবে। বিরাটের এই সিদ্ধান্তে দল অস্থির হয়ে যাবে। এখন খেলোয়াড়দের মনে আসবে যে এইবার বিরাট কোহলির জন্য শিরোপা জিততে হবে। এমন পরিস্থিতিতে খেলোয়াড়রা নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করবে, যা তাদের খেলাকে প্রভাবিত করতে পারে। সেই কারণেই ভুল সময়ে এই ঘোষণা করেছেন বিরাট।’

বন্ধ করুন