বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘গ্রেগকে দেখেছেন দ্রাবিড়’,ঘুরিয়ে টিম নিয়ে নাক না গলানোর পরমার্শ কোহলির কোচের

‘গ্রেগকে দেখেছেন দ্রাবিড়’,ঘুরিয়ে টিম নিয়ে নাক না গলানোর পরমার্শ কোহলির কোচের

রাহুল দ্রাবিড়।

খেলোয়াড় জীবনে বিদেশের মাটিতে রাহুল দ্রাবিড়ের রক্ষণাত্মক মানসিকতা ছিল। কোহলির আবার জিততে চান। কী ইঙ্গিত করতে চাইলেন রাজকুমার শর্মা?

খেলোয়াড় জীবনে রাহুল দ্রাবিড় বিদেশের মাঠে সাধারণত রক্ষণাত্মক মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামতেন। আর বিদেশের মাঠে বিরাট কোহলি নামেন জেতার জন্য। এটাতে কি আদৌ কোচ এবং অধিনায়কের মধ্যে কোনও সমস্যা তৈরি হবে? এই নিয়েই জল্পনা উস্কে দিয়েছে বিরাট কোহলির ছেলেবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা।

একটি ইউটিউব চ্যানেল সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময়ে রাজকুমার শর্মা বলেছেন, কোহলি জেতার জন্য বিদেশে গিয়ে পাঁচ জন বিশেষজ্ঞ বোলার নিয়েও খেলতে চাইবেন। রাজকুমার শর্মার দাবি, ‘রাহুল দ্রাবিড়ের খেলার দিনগুলিতে ভারতীয় দলের একটি রক্ষণাত্মক মানসিকতা ছিল। তারা নিশ্চিত করতে চাইত, বিদেশ সফরে গিয়ে কোনও ভাবে সিরিজ তারা হারবে না। বিরাট কোহলির দৃষ্টিভঙ্গি আবার সিরিজ জেতার। তাই তিনি ৫ বোলার নিয়ে খেলতে চাইবেন।’

রাজকুমার শর্মা আর বলেছেন, ‘রাহুল দ্রাবিড় কিন্তু ইতিমধ্যে গ্রেগ চ্যাপেলের ঘটনা দেখেছেন। তাই তিনি জানেন, একজন কোচের ভূমিকা কী! তাঁর কাজ হল কৌশল তৈরি করা এবং তরুণদের তৈরি করা। শেষ পর্যন্ত অধিনায়ককেই দলের নেতৃত্ব দিতে হয়।’ এ কথা বলে হয়তো টিম নিয়ে যাতে দ্রাবিড় নাক না গলায় সেই পরামর্শই দিতে চেয়েছেন কোহলির ছেলেবেলার কোচ।

সেই সঙ্গে রাজকুমার শর্মা বলেছেন, অধিনায়ক কী চাইছেন সেটা বোঝাও কোচেরই দায়িত্ব। তিনি তাই বলেছেন, ‘প্রত্যেক অধিনায়কের আলাদা স্টাইল থাকে এবং একজন কোচকে তার সাথে মানিয়ে নিতে হয়। কোহলির দায়িত্ব নেওয়ার আগে এমএস ধোনি অধিনায়ক ছিলেন। ও নিঃসন্দেহে অসাধারণ এবং ঠাণ্ডা মাথার অধিনায়ক ছিলেন। এবং তিনি খুব বেশি কথাও বলতেন না কোনও কিছু নিয়ে। অন্য দিকে, কোহলি খুবই আক্রমণাত্মক এবং তিনি ওঁর দলের কাছ থেকে কী চান তা স্পষ্ট।’

অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডে গিয়ে কিন্তু ভালো পারফরম্যান্স করেছিল ভারত। দুই দলের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জিতেওছিল। এ বার দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে তারা ব্যর্থতার পরিসংখ্যান বদলে ফেলতে চায়। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকায় এখনও পর্যন্ত ভারত কোনও টেস্ট সিরিজে জয় পায়নি।

বন্ধ করুন