বাংলা নিউজ > ময়দান > চোটের জন্য সরে দাঁড়াতে বাধ্য হলেন, শেষ ফ্রেঞ্চ ওপেন কি খেলে ফেললেন ফেডেরার?
রজার ফেডেরার। ছবি: রয়টার্স
রজার ফেডেরার। ছবি: রয়টার্স

চোটের জন্য সরে দাঁড়াতে বাধ্য হলেন, শেষ ফ্রেঞ্চ ওপেন কি খেলে ফেললেন ফেডেরার?

  • শনিবার রাতে জার্মানির ডমিনিক কোয়েপফারকে ৭-৬ (৭-৫), ৬-৭ (৩-৭), ৭-৬ (৭-৪), ৭-৫ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছিলেন ফেডেরার।

শেষ পর্যন্ত রোলাঁ গারোকে বিদায় জানালেন রজার ফেডেরার। চতুর্থ রাউন্ডে ওঠার পর থেকেই তিনি হাঁটুর চোট নিয়ে সমস্যা পড়েছিলেন। আদৌ এই টুর্নামেন্টে আর খেলবেন কিনা, সেটা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করে দিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত চোটের কারণে তিনি এ বছরের ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে নাম তুলে নিলেন বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। সম্ভবত ৩৯ বছরের ফেডেরারের শেষ ফ্রেঞ্চ ওপেন খেলে ফেললেন।

শনিবার রাতে জার্মানির ডমিনিক কোয়েপফারকে ৭-৬ (৭-৫), ৬-৭ (৩-৭), ৭-৬ (৭-৪), ৭-৫ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছিলেন ফেডেরার। লড়াই চলেছিল ৩ ঘন্টা ৩৬ মিনিট ধরে। এই প্রথম ফেডেরারের কোনও ম্যাচে প্রথম তিনটি সেটই টাইব্রেকারে গেল। আসলে পুরো ম্যাচের সব সেটেরই ফল নির্ধারিত হয়েছে টাইব্রেকারে। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর ফেডেরার জিতলেন ঠিকই, তবে নিজের ফর্ম নিয়ে নিজেই প্রশ্ন তুলেছেন। সেই সঙ্গে চোটের সমস্যাও তাঁকে ভোগাচ্ছে, সেটাও পরিষ্কার করে জানিয়েছেন ফেডেক্স। সে কারণেই সম্ভবত নাম তুলে নিলেন ফেডেরার।

২০টি গ্র্যান্ডস্লামের মালিকের ২০২০ সালে দু'বার হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়েছিল। তবে চোট সারিয়ে এই বছর তাঁর প্রধান লক্ষ্যই ছিল, উইম্বলডনে অংশ নেওয়া। আর তার জন্যই সম্ভবত ফ্রেঞ্চ ওপেনে খেলে হাঁটুতে বাড়তি চাপ দিতে চাননি ফেডেরার। এর পর খেলতে গিয়ে যদি চোট বাড়ে, সে ক্ষেত্রে হয়তো উইম্বলডনে তিনি অংশই নিতে পারবেন না। আর এই বছর কোনও ভাবেই উইম্বলডন হাতছাড়া করতে চাইছেন না ফেডেরার। সে কারণেই সম্ভবত মাঝ পথেই রোলাঁ গারোকে বিদায় জানালেন ফেডেক্স।

বন্ধ করুন