বাংলা নিউজ > ময়দান > পন্তকে ৫ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানোর পরিকল্পনা ছিল কোহলির, রহস্য ফাঁস করলেন রাঠোর
ছক্কা হাঁকাচ্ছেন পন্ত। ছবি- টুইটার।
ছক্কা হাঁকাচ্ছেন পন্ত। ছবি- টুইটার।

পন্তকে ৫ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানোর পরিকল্পনা ছিল কোহলির, রহস্য ফাঁস করলেন রাঠোর

  • সিডনি ও ব্রিসবেন টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ঋষভ পন্তকে পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠিয়ে সফল হয় ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিডনি টেস্টের শেষ দিনে অজিঙ্কা রাহানে আউট হওয়ার পর হনুমা বিহারীর পরিবর্তে ঋষভ পন্তকে ব্যাট হাতে মাঠে নামতে দেখে অবাক হয়েছিলেন অনেকেই। চোটের জন্য রবীন্দ্র জাদেজা ব্যাট করতে পারবেন কিনা নিশ্চিত ছিল না। এই অবস্থায় অজি বোলারদের বিরুদ্ধে দুর্গ সামলাতে আগ্রাসী পন্তের বদলে রক্ষণাত্মক হনুমার উপর আস্থা রাখাই স্বাভাবিক ছিল। যদিও ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট উলট পথে হাঁটে এবং তাদের পরিকল্পনা সফল হয় শেষ পর্যন্ত।

পন্তের ৯১ রানের অনবদ্য ইনিংস সিডনি টেস্ট বাঁচাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। পন্ত আউট না হলে ভারত সিডনি টেস্ট জিততে পারত বলেও ধারণা বিশেষজ্ঞমহলের একাংশের।

শুধু সিডনিতেই নয়, পন্তকে ব্যাটিং অর্ডারে তুলে এনে পাঁচ নম্বরে নামানোর সুফল মেলে ব্রিসবেন টেস্টের শেষ ইনিংসেও। তাঁর ৮৯ রানের অপরাজিত ইনিংসে ভর করেই ভারত গাব্বায় টেস্ট জিতে সিরিজের দখল নেয়।

ভারতের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর জানালেন, পন্তকে ৫ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানোর পরিকল্পনা ছিল বিরাট কোহলির মস্তিষ্কপ্রসূত। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সঙ্গে তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে কথা বলার সময় রাঠোর বলেন, ‘সত্যি বলতে পরিকল্পনাটা ছিল বিরাট কোহলির। ও বলে, ডানহাতি ও বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের কম্বিনেশন বজায় রাখতে পন্তকে ৫ নম্বরে পাঠানো যায়। আমরা অজিঙ্কার সঙ্গেও কথা বলি এই নিয়ে। তবে প্রথম ইনিংসে ওকে ৬ নম্বরেই পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।’

পরক্ষণে রাঠোর জানান কেন সিডনি টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পন্তকে ৫ নম্বরে পাঠানো হয়। তাঁর কথায়, ‘কখন উইকেট পড়বে সেটা বিবেচনা না করেই যেহেতু শেষ ইনিংস ছিল এবং আমাদের রান তুলতে হতো, তাই পন্তকে পাঁচ নম্বরে পাঠানো হয়। আমাদের টেস্ট ড্র করার উদ্দেশ্য ছিল না। যতক্ষণ পারা যায়, জয়ের জন্য চেষ্টা করাই ছিল লক্ষ্য। সুতরাং পন্তকে ব্যাট করতে পাঠানোর ওটাই সঠিক সময় ছিল।’

শেষে টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটিং কোচ বলেন, ‘রবি শাস্ত্রী ডানহাতি ও বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের কম্বিনেশনে বিশ্বাসী। দীর্ঘদিন ধরেই ওর ধারণা, অস্ট্রেলিয়ানরা বাঁ-হাতিদের তত ভালো বল করতে পারে না। শেষমেশ অজিঙ্কাও একমত হওয়ায় পন্তকে পাঁচ নম্বরে পাঠানো হয়।’

রাঠোর এও জানান যে, শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানরা বড় রান করলে পন্তকে চার নম্বরে পাঠানোরও পরিকল্পনা ছিল। যদিও সেটা শেষমেশ সম্ভব হয়নি।

বন্ধ করুন