বাংলা নিউজ > ময়দান > কেন বিদেশিরা চান যে তাদের লিগে ভারতীয়রা খেলুক? গিলক্রিস্টকে জবাব দিলেন গাভাসকর

কেন বিদেশিরা চান যে তাদের লিগে ভারতীয়রা খেলুক? গিলক্রিস্টকে জবাব দিলেন গাভাসকর

কিংবদন্তি ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকর 

অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন উইকেটরক্ষক-ব্যাটার অ্যাডাম গিলক্রিস্ট বিদেশী টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের NOC না দেওয়ার বিষয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলে ছিলেন। এবার গিলক্রিস্টকে জবাব দিলেন কিংবদন্তি সুনীল গাভাসকর।

সুনীল গাভাসকর বলেছেন যে কিছু প্রাক্তন বিদেশী ক্রিকেটার চান যে বিসিসিআই ভারতীয় ক্রিকেটারদের তাদের টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার অনুমতি দিক। গাভাসকরের মতে, কেবলমাত্র আরও স্পনসরদের আকর্ষণ করার জন্যই নাকি এমন দাবি করছেন তারা। বিদেশের বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার জন্য ভারতীয় চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের ছাড়পত্র না দেওয়ার জন্য প্রশ্ন তুলেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন উইকেটরক্ষক-ব্যাটার অ্যাডাম গিলক্রিস্ট। 

ক্রিকেটারদের ছাড়পত্র না দেওয়ার বিষয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অবস্থান নিয়ে অ্যাডাম গিলক্রিস্টের প্রশ্নের জবাব দিলেন সুনীল গাভাসকর। গিলক্রিস্টের তোলা বিতর্কিত প্রশ্নের কয়েকদিন পরেই গাভাসকর নিজের মন্তব্য রেখেছেন। গিলক্রিস্ট আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিদের ভারতের বাইরেও তাদের ডানা ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে ক্রমবর্ধমান আগ্রহ সম্পর্কে সতর্ক করেছিলেন। তারও উত্তর দিয়েছেন গাভাসকর।  বলেছিলেন যে এটি 'পুরনো শক্তির জন্য প্রত্যাশিত নয়' যে ভারত তাদের খেলোয়াড়দের ক্লান্তি থেকে রক্ষা করতে এবং তাদের কাজের চাপ পরিচালনা করতে চায়।

স্পোর্টস্টারের জন্য তার কলামে এই বিষয়ে নিজের মন্তব্য লিখেছেন সুনীল গাভাসকর। তিনি লিখেছেন, ‘কিছু বিদেশী প্রাক্তন খেলোয়াড় বলেছেন যে, ভারতীয় খেলোয়াড়দের বিগ ব্যাশ বা হান্ড্রেড খেলার অনুমতি দেওয়া উচিত। মূলত, তারা চায় তাদের লিগে আরও বেশি স্পনসরশিপ থাকুক। তারা তাদের ক্রিকেট নিয়ে উদ্বিগ্ন, যা সম্পূর্ণ বোধগম্য।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘কিন্তু যখন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তাদের ক্রিকেটারকে ম্যাচের জন্য সতেজ রাখার চেষ্টা করে এবং সেই বিষয়টা নিশ্চিত করতেই খেলোয়াড়দের বিদেশে খেলার বিষয়ে সীমাবদ্ধ তৈরি করে। তারা সবটাই তাদের ক্রিকেটকে রক্ষা করতে করে। আর এটাই 'পুরাতন শক্তির ছেলেরা মেনে নিতে পারছে না।’

কিংবদন্তি ভারতীয় ক্রিকেটার এই সত্যটিও তুলে ধরেছেন যে বহু প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার আইপিএল দলে কোচিং স্টাফের অংশ। তিনি বলেন, ‘তারা কেবল তাদের দেশের লিগের জন্য ভারতীয় খেলোয়াড়দের উপলব্ধ করার কথা বলছে, তবে সাপোর্টিং স্টাফ বা অন্যদের কথা বলছে না, যারা দুর্দান্ত কাজ করতে পারে। যেমনটি গত অর্ধ ডজন বছরে ক্রিকেট বিশ্ব খুঁজে পেয়েছে।’ গাভাসকর আরও বলেন, ‘শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়রাই দলের গঠনে আধিপত্য বিস্তার করেনি, কোচ এবং সহায়তা কর্মীরাও একই ভাবে পরিশ্রম করেছেন। ক্রিকেটের 'পুরানো শক্তি'র জন্য এটি কখনই দ্বিমুখী রাস্তা নয়।’

দক্ষিণ আফ্রিকা এবং সংযুক্ত আরব আমির শাহিতে আসন্ন টি-টোয়েন্টি লিগে একাধিক আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দল কেনার পরে বিতর্কটি সামনে এসেছিল। তাদের মধ্যে কেউ কেউ ইতিমধ্যেই ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও নিজেদের দল কিনেছে।

বন্ধ করুন