বাংলা নিউজ > টেকটক > WhatsApp-এ লাল টিক? সরকার মেসেজ রেকর্ড করছে? জানুন আসল সত্যি
ফাইল ছবি : রয়টার্স (REUTERS)
ফাইল ছবি : রয়টার্স (REUTERS)

WhatsApp-এ লাল টিক? সরকার মেসেজ রেকর্ড করছে? জানুন আসল সত্যি

  • ভিত্তিহীন এই মেসেজই যাচাই না করে শেয়ার করে আরও ভাইরাল করে দিয়েছেন বহু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী।

সম্প্রতি অনলাইন মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপে একটি মেসেজ ভাইরাল হয়েছে। মেসেজে বলা হচ্ছে, 'কেন্দ্রের নয়া আইটি নিয়ম অনুযায়ী এবার থেকে আপনার চ্যাট ও কল রেকর্ড করা হবে।' ভিত্তিহীন এই মেসেজই যাচাই না করে শেয়ার করে আরও ভাইরাল করে দিয়েছেন বহু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী।

ভুয়ো মেসেজটিতে লেখা হয়েছে, এবার থেকে ব্যবহারকারীদের কল ও চ্যাট রেকর্ড করা হবে। সেটা সরাসরি কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের সঙ্গে যুক্ত থাকবে।

শুধু তাই নয়, কেন্দ্র সরকার বা প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হোয়াটস্যাপে যাতে কিছু না বলা হয়, সে বিষয়েও সতর্ক করা হয়ে মেসেজটিতে। 'এখন থেকে এমনটা করলে তা অপরাধের সামিল। বিনা ওয়ারান্টেই গ্রেফতার করা হতে পারে,' বলা হয়েছে ভুয়ো মেসেজটিতে। বলা হয়েছে, সাইবার ক্রাইমের আওতায় পড়বে এই ধরনের মেসেজ।

সেই সঙ্গে মেসেজ সেন্ড বা সিন হওয়ার টিক মার্ক নিয়েও আজব নিয়মের কথা বলা হয়েছে। তিনটি টিক মার্ক, লাল টিক মার্ক ইত্যাদির মাধ্যমে সরকার যে মেসেজটি দেখছে, বা আইনানুগ পদক্ষেপ নিচ্ছে, সেটি নাকি বোঝা যাবে। এমনই আজব দাবি করা হয়েছে মেসেজটিতে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় যেমন দ্রুত তথ্য ছড়ায়, তেমনই ছড়ায় গুজব। ঠিক যেমন দিন কয়েক আগেই টুইটার ও ফেসবুক বন্ধ হওয়া নিয়ে আশঙ্কায় ভরে গিয়েছিল সবার টাইমলাইন।

তাই হঠাত্ কোনও মেসেজ, ভিডিয়ো, ছবি, পোস্ট দেখলেই তা শেয়ার করবেন না। গুগল-এ সে বিষয়ে লিখে সার্চ করুন। গুগল সার্চের নিউজ সেকশনে যান। ৩-৪ টে প্রথম সারির সংবাদমাধ্যমে যদি সে বিষয়ে খবরের উল্লেখ থাকে, তবেই নিশ্চিত হন। আর যদি সার্চ করেও কিছু না মেলে, সেক্ষেত্রে বুঝতে হবে সেটি গুজব। এক্ষেত্রে মেসেজ/পোস্ট শেয়ার করা ব্যক্তিকে সতর্ক করুন।

 

বন্ধ করুন