বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Uluberia bar association election: উলুবেড়িয়া আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচনে জয়ী রাম-বাম জোট

Uluberia bar association election: উলুবেড়িয়া আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচনে জয়ী রাম-বাম জোট

উলুবেড়িয়া ফৌজদারি এবং দেওয়ানি আদালত।

দেওয়ানি এবং ফৌজদারি দুই বিভাগের সভাপতি, সহ-সভাপতি, সম্পাদক, সহ-সম্পাদক, কোষাধক্ষ্য, অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি, কালচারাল সেক্রেটারি প্রভৃতি পদে নির্বাচন হয়। সেখানে গুরুত্বপূর্ণ পদে জয়ী হয়েছে বিরোধীরা। যার মধ্যে রয়েছে সভাপতি এবং সম্পাদকের পদ।

সাগরদিঘি উপনির্বাচনে হারের পর এবার উলুবেড়িয়া আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচনেও জয়ী হতে পারল না শাসকদল। আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশন দখল করে নিল রাম-বাম জোট। ১৮টি আসনের মধ্যে ১১টিতে জয়ী হয়েছে রাম-রাম জোট। ৭টি আসন পেয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও সিপিএম-বিজেপির জোটকে ‘রামধনু জোট’ বা ‘রাম-বাম জোট’ বলেই কটাক্ষ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা ব্যাকফুটে রাজ্যের শাসকদল।

আদালত সূত্রের খবর, দেওয়ানি এবং ফৌজদারি দুই বিভাগের সভাপতি, সহ-সভাপতি, সম্পাদক, সহ-সম্পাদক, কোষাধক্ষ্য, অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি, কালচারাল সেক্রেটারি প্রভৃতি পদে নির্বাচন হয়। সেখানে গুরুত্বপূর্ণ পদে জয়ী হয়েছে বিরোধীরা। যার মধ্যে রয়েছে সভাপতি এবং সম্পাদকের পদ। অন্যদিকে, শাসকদল সহ-সভাপতি, দুটি সহ-সম্পাদক, কোষাধক্ষ্য, ফৌজদারি বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি, কোষাধক্ষ্য এবং কালচারাল সেক্রেটারি পদে জয়ী হয়েছে। এ নিয়ে কটাক্ষ করেছেন উলুবেরিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান অভয় দাস। তিনি বলেন, ‘আমাদের জয়ী প্রার্থীদের শুভেচ্ছা জানাই। বার অ্যাসোসিয়েশনের নতুন বোর্ডকেউ শুভেচ্ছা জানাই। তবে এটা প্রমাণিত হল যে রাম-বাম একসঙ্গেই আছে। ওরা একে অপরের পরিপূরক। অন্যদিকে, বার অ্যাসোসিয়েশনের ফৌজদারি বিভাগের সহ-সভাপতি খায়রুল বাশার বলেন, ‘আগের বোর্ড নিয়ে আইনজীবীরা ক্ষুব্ধ ছিলেন। এই নির্বাচনের ফল তাঁদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। আগামীদিনে সকলকে নিয়ে ভোট গঠন করা হবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য, সাগরদিঘি উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর গত শনিবার উলুবেড়িয়া আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন হয়। ১৮টি আসনের মধ্যে সবকটিতেই প্রার্থী দিয়েছিল শাসকদল। এর আগের বোর্ডে শাসকদের পক্ষের আইনজীবীদের দখলে ছিল ১৬টি আসন।

অন্যদিকে, ভোটের সময় শাসক দলের বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তুলেছিল বিরোধীরা। উলুবেড়িয়া পুরসভার চেয়ারম্যান অভয় দাস লোক নিয়ে এসে হুমকি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা। এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তাদের বক্তব্য, নির্বাচনের ফলাফল প্রমাণ করছে অগণতান্ত্রিকভাবে ভোট হয়নি। প্রসঙ্গত, শুধু বার অ্যাসোসিয়েশনে নির্বাচনে নয়, এর আগেও বেশ কয়েকটি সমবায় সমিতির নির্বাচনে একসঙ্গে লড়তে দেখা গিয়েছিল বিজেপি এবং সিপিএমকে। সেক্ষেত্রে বেশ কয়েকটিতে রাম-বাম জোট জয়লাভ করেছিল।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন