বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়েও প্রার্থী করা হয়নি’, ভাইরাল অডিয়োয় অস্বস্তিতে BJP
গত বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়ে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি শমিত দাসের বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)
গত বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়ে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি শমিত দাসের বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

‘বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়েও প্রার্থী করা হয়নি’, ভাইরাল অডিয়োয় অস্বস্তিতে BJP

  • গত বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়ে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি শমিত দাসের বিরুদ্ধে।

গত বিধানসভা ভোটে টাকা নিয়ে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সম্প্রতি এমনই অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি শমিত দাসের বিরুদ্ধে। সেই সংক্রান্ত একটি অডিয়ো রেকর্ডিং (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) ভাইরাল হল। 

সম্প্রতি একটি অডিয়ো ক্লিপিং (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দাবি করা হচ্ছে, পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড়ে বিজেপি নেতা জন্মেজয় খুঁটিয়ার কাছ থেকে বেশ কয়েক হাজার টাকা নিয়েছিলেন তৎকালীন জেলা সভাপতি শমিত দাস। টাকার বিনিময়ে বিধানসভা ভোটে টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ভোটে লড়ার টিকিট পাননি জন্মেজয়। 

তিনি এই বিষয়ে জানান, ‘‌আমি কোথাও কোনও অভিযোগ করব না। দলীয় নেতৃত্ব সব জানে।’‌ একইসঙ্গে ওই বিজেপি নেতার অভিমত, ‘‌সব দলেই প্রতারিতরা থাকেন। এখানেও রয়েছে। এর ফলে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। আমার আশা, দলীয় নেতৃত্ব সব জেনেবুঝে ব্যবস্থা নেবেন।’‌

উল্লেখ্য, গত বিধানসভা ভোটের সময়ে বিজেপির প্রচারের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল জন্মেজয়কে। কিন্তু ভোটে লড়ার ছাড়পত্র না পেয়ে নিজেকে ক্রমশই নিষ্ক্রিয় করে ফেলেন তিনি। তবে যাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, সেই প্রাক্তন জেলা বিজেপি সভাপতির দাবি, এই ঘটনার কোনও সত্যতা নেই। উদ্দেশ্যপ্রওদিতভাবে তাঁর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হচ্ছে। এখনকার বিজেপির জেলা সভাপতি আবার বিষয়টি জানা নেই বলে এড়িয়ে গিয়েছেন। 

বন্ধ করুন