বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রাস্তায় রক্তমাখা, ক্ষতবিক্ষত ভ্রুণ, থিকথিক করছে পিঁপড়ে
নার্সিংহোমে অবৈধ গর্ভপাতের মাধ্যমে ভ্রুণটি এসেছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে  (প্রতীকী ছবি)
নার্সিংহোমে অবৈধ গর্ভপাতের মাধ্যমে ভ্রুণটি এসেছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে  (প্রতীকী ছবি)

রাস্তায় রক্তমাখা, ক্ষতবিক্ষত ভ্রুণ, থিকথিক করছে পিঁপড়ে

  • স্থানীয় নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হচ্ছে। 

কাছেই নার্সিংহোম। আর রাস্তার উপর পরে রক্তমাখা মাংসপিণ্ড। পূর্ব মেদিনীপুরের কোলাঘাটের ঘটনা। প্রথমের দিকে অনেকেরই বিষয়টি চোখে পড়েনি। পরে ভালো করে খেয়াল করার পর বাসিন্দারা দেখেন মাথার মতো একটি আকৃতি দেখা যাচ্ছে। এরপর অনেকেই বুঝতে পারেন আসলে এটি একটি ভ্রুণ। এদিকে সেটির উপর থিকথিক করছে পিঁপড়ে। তাছাড়া ভ্রুণটির বিভিন্ন অংশ ক্ষতবিক্ষত ছিল। এদিকে গোটা ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। কোলাঘাট থানার পুলিশ ভ্রুণটিকে উদ্ধার করেছে। 

কিন্তু এখানেই প্রশ্ন উঠছে ভ্রুণটি কোথা থেকে এল? তবে কি অবৈধ গর্ভপাতের কারণেই ভ্রুণ হত্যা করা হয়েছে? তারপর সেটিকে অন্যত্র ফেলা হয়েছিল। সেটিই সম্ভবত কুকুরে টেনে রাস্তায় এনেছে। এদিকে কাছেই থাকা একটি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল উঠেছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি রক্তমাখা ভ্রুণটিতে পড়ে থাকতে দেখে সংশ্লিষ্ট নার্সিংহোমেও খবর দেওয়া হয়। কিন্তু নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ এনিয়ে গুরুত্ব দিতে চায়নি। বাসিন্দাদের দাবি সম্ভবত নার্সিংহোম থেকেই ভ্রুণটিকে রাস্তায় ফেলা হয়েছিল। তবে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের দাবি এই ঘটনার সঙ্গে তাদের কেউ জড়িত নয়। তবে বাসিন্দাদের অভিযোগ টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন বেসরকারি নার্সিংহোমে গর্ভপাত করা হয়। সম্ভবত তার জেরেই ভ্রুণটি এখানে এসেছে। 

 

বন্ধ করুন