বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কালো ধোঁয়ায় ভরে গেল পুরো এলাকা! আগুনে ভস্মীভূত আরামবাগের ইলেকট্রনিক্সের গুদাম
আরামবাগের ইলেকট্রনিক্সের এই গুদামে আগুন লাগে। নিজস্ব ছবি।
আরামবাগের ইলেকট্রনিক্সের এই গুদামে আগুন লাগে। নিজস্ব ছবি।

কালো ধোঁয়ায় ভরে গেল পুরো এলাকা! আগুনে ভস্মীভূত আরামবাগের ইলেকট্রনিক্সের গুদাম

  • পার্শ্ববর্তী ফায়ার ডিভিশন থেকে অতিরিক্ত ইঞ্জিন নিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে গেল হুগলির আরামবাগের ডোঙ্গল এলাকার একটি ইলেকট্রনিক্সের গুদাম। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়ায়। মঙ্গলবার ভোররাতে আগুন লাগে ইলেকট্রনিক্সের ওই গুদামে। সেখানে প্রচুর পরিমাণে ধার্য পদার্থ থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। একসময় আগুন এতটাই ভয়াবহ আকার ধারণ করে যে পার্শ্ববর্তী ফায়ার ডিভিশন থেকে অতিরিক্ত ইঞ্জিন নিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

দমকল কর্মীরা জানিয়েছেন, অগ্নিকাণ্ডের ফলে গুদামে মজুদ থাকা সমস্ত সরঞ্জাম পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে শর্ট সার্কিট থেকে এই আগুন লেগেছে বলে মনে করা হচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় এক ব্যক্তি গুদাম থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখেন। যখন তার নজরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি আসে তখন এলাকা পুরো কালো ধোঁয়ায় ভরে যায়। সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তি অন্যান্য স্থানীয়দের খবর দেন। আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় তারা পুলিশ এবং দমকলকে খবর দেন।

এরপরেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ ও দমকল বাহিনী। এক প্রত্যক্ষদর্শীর কথায়, 'আগুন লেগেছে দেখে আমি চিৎকার করে ডাকাডাকি করি। চিৎকার শুনে অন্যান্য প্রতিবেশীরা বাইরে বেরিয়ে আসেন । প্রথমে আমরাই জল দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি। এরপর আগুন আয়ত্তের বাইরে চলে গেলে দমকলে খবর দেওয়া হয়।'

আগুন নিয়ন্ত্রণে প্রথমে আরামবাগের ফায়ার স্টেশন থেকে দমকলের তিনটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে আসে। তবে আগুনের ভয়াবহতা বেরে যাওয়ার ফলে আরামবাগের পাশাপাশি তারকেশ্বর ডিভিশন থেকে আরও দুটি দমকলের ইঞ্জিন আনা হয়। কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে বেলা বাড়লেও ওই গোডাউন থেকে কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। দোতালার ওই গুদামে ল্যাডারের সাহায্যে ওপরে ওঠেন দমকল কর্মীরা। গুদামে কোনও রকমের পকেট ফায়ার রয়েছে কিনা তাও তারা খতিয়ে দেখেন।

বন্ধ করুন