বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Kurmi Community Protest: আন্দোলন প্রত্যাহার করল কুড়মি সমাজ, রেল অবরোধ উঠতেই স্বস্তি যাত্রীদের‌

Kurmi Community Protest: আন্দোলন প্রত্যাহার করল কুড়মি সমাজ, রেল অবরোধ উঠতেই স্বস্তি যাত্রীদের‌

১০০ ঘণ্টা পর রেল অবরোধ প্রত্যাহার করলেন কুড়মি সম্প্রদায়ের মানুষজন।

পুরুলিয়ার কুস্তাউর এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের খেমাশুলি স্টেশনে রেল অবরোধ চলছিল। খেমাশুলিতে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে চলে অবরোধ। ঝাড়গ্রামের লোধাশুলিতে জাতীয় সড়কে এবং রাজ্য সড়ক স্তব্ধ হয়ে পড়েছিল। অবরোধের জেরে ট্রাক, লরি, বাসের দীর্ঘ লাইন পড়ে গিয়েছিল। চরম ভোগান্তির শিকার হয় সাধারণ মানুষ।

টানা পাঁচদিন আন্দোলন গড়ে তোলার পর এবার তা থামল। কুড়মি সম্প্রদায়ের আন্দোলনই কেন্দ্রীয় সরকারকে টের পাইয়ে দিল কত ধানে কত চাল। ১০০ ঘণ্টা পর রেল অবরোধ প্রত্যাহার করলেন কুড়মি সম্প্রদায়ের মানুষজন। অবশেষে রেল অবরোধ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিলেন অবরোধকারীরা। তাঁদের আন্দোলনের জেরে নিত্যযাত্রীদের নাকাল হতে হয়েছে। চরমে উঠেছিল দুর্ভোগ। আজ, শনিবার আন্দোলন প্রত্যাহার করলেন কুড়মি সম্প্রদায়। তিন জেলার জেলাশাসকের সঙ্গে বৈঠকের পর জট কাটল। আর এই খবরে স্বস্তি পেলেন সাধারণ মানুষজন।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছিল?‌ কুড়মি সম্প্রদায় বেশ কয়েকটি দাবি তুলেছিল। তার মধ্যে ছিল, কুড়মি জাতিকে তফসিলি জনজাতি সম্প্রদায়ভুক্ত করা, কুড়মালি ভাষাকে সংবিধানের অষ্টম তফসিলে অন্তর্ভুক্ত করা এবং তাঁদের উন্নয়ন ঘটানো। এই দাবির বেশিরভাগটাই কেন্দ্রীয় সরকারের অন্তর্গত। তাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সমস্যার সমাধানে কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখেছিলেন। যাতে কর্ণপাত না করার জেরে এই আন্দোলন দীর্ঘ হল। গত চার দিন ধরে রাজ্যের নানা প্রান্তে বিক্ষোভ শুরু হয়ে। অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রাম জেলার বেশকিছু অংশ। টানা পাঁচদিন অচলাবস্থা তৈরি হয় রেল চলাচল এবং সড়ক যোগাযোগে।

কোন পথে এল সমাধান?‌ তিন জেলার ডিএমদের সঙ্গে বৈঠকের পর আপাতত জট কাটল। আদিবাসী উন্নয়ন দফতরের সঙ্গে আলোচনার পর অবরোধ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেয় তাঁরা। তবে আগামী দিনে তাঁদের দাবি যদি না মেটে তাহলে আবারও আন্দোলনের পথে যেতে পারেন তাঁরা। আজ, শনিবার পাঁচদিনে পড়েছিল কুড়মিদের আন্দোলন। পুরুলিয়ার জেলাশাসক রজত নন্দার দফতরে ভিডিয়ো কনফারেন্স হয়। সেখানে অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ দফতরের সচিব সঞ্জয় বনশলের সঙ্গে বৈঠক হয়। সিআরআই–এর চিঠিতে যে ভুল ছিল তা সংশোধন করার কথা জানানো হয় রাজ্যের পক্ষ থেকে। এই ইতিবাচক বার্তা পেয়ে অবরোধ তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা বলে সূত্রের খবর।

কী পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল?‌ পুরুলিয়ার কুস্তাউর এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের খেমাশুলি স্টেশনে রেল অবরোধ চলছিল। খেমাশুলিতে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে চলে অবরোধ। ঝাড়গ্রামের লোধাশুলিতে জাতীয় সড়কে এবং রাজ্য সড়ক স্তব্ধ হয়ে পড়েছিল। অবরোধের জেরে ট্রাক, লরি, বাসের দীর্ঘ লাইন পড়ে গিয়েছিল। চরম ভোগান্তির শিকার হয় সাধারণ মানুষ। খাবার, জল পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন ট্রাক, লরির চালকরা। এই বিষয়ে আগে কুড়মি সমাজের মূল নেতা অজিতপ্রসাদ মাহাতো বলেন, ‘সিআরআইয়ের রিপোর্টে ত্রুটি রয়েছে। যে চিঠি আমাদের দেওয়া হয়েছে সেটি পুরনো চিঠি। এটা বদলাতে হবে। না হলে এভাবেই চলবে আন্দোলন।’‌

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

ধোনি নন, বার্য়ানের 'সেরা' প্লেয়ারের সমতুল্য হলেন বিরাট! এ কী বলল জার্মান ক্লাব! 'কেন্দ্রীয় হারেই ডিএ রাজ্যে...', বড় মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর WPL-এর খেলা চলাকালীন RCB-র এই ক্রিকেটারকে বিয়ের প্রস্তাব অনুরাগীর, ভাইরাল হল ছবি প্রথমবার বাংলাদেশে খেলবে অস্ট্রেলিয়ার মহিলা দল! কবে কখন খেলা হবে? রইল সূচি 'কিছুটা কঠিন হল', কেমন হল ICSE-র ভূগোল পরীক্ষা? কী বলছে পড়ুয়া ও শিক্ষকরা? ‘জগদ্ধাত্রী’র জীবনে উঁকি দিচ্ছে নতুন প্রেম? ‘লোকে সেটা…’,খোলাখুলি জবাব অঙ্কিতার হৃতিকই ‘শেষ ব্যক্তি’ যিনি স্টারডমের আঁচ পেয়েছেন! কেন এমন বললেন ভিকি খানা-পিনা-গান-আড্ডা ভরপুর! সাদা পোশাক শ্রীময়ীর, লাল হলেন কাঞ্চন, জমল রাত শিলদা ক্যাম্পে মাওবাদী হানার ঘটনায় আমৃত্যু কারাদণ্ডের সাজা ১৩ অপরাধীকে পদত্যাগ নিয়ে জোর জল্পনা, এরই মাঝে মুখ খুললেন হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী সুখু

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.