মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

Lockdown 2.0: করোনা সংকট মোকাবিলায় ১.৫ লাখ কোটি টাকার পুনর্বাসন পরিকল্পনা তৈরি রাজ্যের

  • রাজ্য যে আর্থিক টাস্ক ফোর্স গঠন করেছিল, তা এই পরিকল্পনা করেছে।

করোনাভাইরাস সংকট মোকাবিলায় ১.৫২ লাখ কোটির টাকার পুনর্বাসনের পরিকল্পনা তৈরি করছে রাজ্য সরকার। ছ'মাসের জন্য সেই পরিকল্পনা করা হচ্ছে। বুধবার নবান্নে একথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: লকডাউনের পরে নিয়ন্ত্রিতভাবে শুরু হবে উড়ান পরিষেবা, থাকবেন ৩০% যাত্রী

সেই পরিকল্পনা নিয়ে বিস্তারিত কোনও মন্তব্য না করলেও মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'আমি যে অর্থনৈতিক টাস্ক ফোর্স তৈরি করেছিলাম, সেটিকে অভিনন্দন জানাতে চাই। এটি ছ'মাসের জন্য ১.৫২ লাখ কোটি টাকার আর্থিক পুনর্বাসনের পরিকল্পনা তৈরি হয়েছে। রাজ্যের অর্থসচিবের নেতৃত্বাধীন টাস্ক ফোর্স এই পরিকল্পনা করেছে ও রাজ্য সরকার তা খতিয়ে দেখছে।'

আরও পড়ুন : সোমবার থেকে খুলবে দোকান, চলবে বাস, এক ঝলকে দেখে নিন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা

করোনা সংকট মোকাবিলায় ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশের জিডিপি-র কমপক্ষে ছয় শতাংশ ব্যয় করার আর্জি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকারগুলির জন্য ১০ লাখ কোটি টাকার জাতীয় অর্থনৈতিক ও স্বাস্থ্য প্যাকেজ চালুর আর্জি জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি, কেন্দ্রের কাছে বকেয়া ৫০,০০০ কোটি টাকা মিটিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন মমতা।

আরও পড়ুন : বাড়ছে রেশন কার্ডের চাহিদা, লকডাউন বৃদ্ধি হবে বলেই ধারণা সাধারণের

এদিকে, লকডাউনের জেরে থমকে থাকা অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরুর জন্য শর্তসাপেক্ষে গ্রিনজোনগুলিতে বিভিন্ন কাজে ছাড়পত্র দিয়েছে রাজ্য। সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলিতে বই, চা, পান, রং, মোবাইল রিচার্জ, হার্ডওয়্যার, লন্ড্রি-সহ কিছু দোকান খোলা যাবে। কাজ শুরু করতে পারবে কিছু কলকারখানা। সরকারি প্রকল্প ও গ্রামের রাস্তা তৈরির কাজেও ছাড় দিয়েছে রাজ্য। জেলার মধ্যে চলবে বাস। তবে সবক্ষেত্রেই পুলিশ-প্রশাসনের অনুমতি লাগবে।

বন্ধ করুন