বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Firhad Hakim: ‘‌এক কোটির পার্টিতে ১ হাজার বড় জোর চোর আছে’‌, বিস্ফোরক মন্তব্য ফিরহাদের

Firhad Hakim: ‘‌এক কোটির পার্টিতে ১ হাজার বড় জোর চোর আছে’‌, বিস্ফোরক মন্তব্য ফিরহাদের

রাজ্যের মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

আজ, শনিবার মুর্শিদাবাদের এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুরের রবীন্দ্র ভবন হলে একটি জলস্বপ্ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি। আর এই মঞ্চ থেকেই একাংশকে বিঁধতে দেখা যায় ফিরহাদ হাকিমকে। দলে চোর–চামার যে আছে সেটা কার্যত এদিন মেনেই নেন ফিরহাদ হাকিম। 

শাসকদল এবং সরকারের বিরুদ্ধে নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। তার জেরে বেশ কয়েকজন নেতা–মন্ত্রী এখন শ্রীঘরে রয়েছেন। গরুপাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডল এবং তাঁর মেয়ে সুকন্যা এখন জেলে। এই পরিস্থিতিতে আজ, শনিবার মুর্শিদাবাদে দলের সভায় যোগ দিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। আর তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে এখন সরগরম হয়ে উঠেছে রাজ্য–রাজনীতি।

ঠিক কী বলেছেন ফিরহাদ?‌ আজ, শনিবার মুর্শিদাবাদের এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুরের রবীন্দ্র ভবন হলে একটি জলস্বপ্ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি। আর এই মঞ্চ থেকেই একাংশকে বিঁধতে দেখা যায় ফিরহাদ হাকিমকে। দলে চোর–চামার যে আছে সেটা কার্যত এদিন মেনেই নেন ফিরহাদ হাকিম। দুর্নীতির কথা স্বীকার করে বড় পরামর্শ দেন জঙ্গিপুরের বিধায়ক জাকির হোসেনও। এখানেই ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌১ কোটির পার্টি, সারা বাংলায় এত সদস্য, নিশ্চিতভাবে সংসারে পাঁচটা ভাই থাকলে একটা ভাই সংসারের বদনাম করে দেয়। ১ কোটির পার্টিতে ১ হাজার বড় জোর চোর চামার আছে। শতাংশের নিরিখে তা খুবই কম। আমরা কি চোর? আমরা মানুষের স্বার্থে কাজ করছি।’‌

ঠিক কী বলছে সিপিএম?‌ এই মন্তব্যের পরই সমালোচনায় মুখর হন সিপিএমের শীর্ষ নেতা সুজন চক্রবর্তী। রাজ্যের মন্ত্রীর এমন মন্তব্যের সমালোচনা করে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‌তৃণমূলের কখন কোন নেতা কোন ভাষায় কথা বলেন কেউ বুঝতে পারেন না। আমি না হয় বিধায়কের কথা ধরলাম না। ফিরহাদ হাকিম মন্ত্রী, ওনার কথাই ধরলাম। ১ হাজার চোর থাকতে পারে। তা তাদের নামের তালিকা দিয়ে বার করে দিন। সেই হিম্মত আছে কি? পঞ্চায়েতে ১০০ দিনের কাজ থেকে শুরু করে কয়লা, গরু, বালি সবেতেই ওদের দুর্নীতি।’‌

তৃণমূল বিধায়ক কী বলছেন?‌ এই সভাতে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক জাকির হোসেন। জঙ্গিপুরের এই বিধায়ক সভা থেকেই বলেন, ‘‌যাঁরা চুরি করছে, তাঁদের দল থেকে তাড়াতে হবে। তৃণমূলের কিছু প্রধান চুরি করে। তার দায় নিতে হয় দলকে। অপরাধের ভার এসে পড়ে নেত্রীর ওপর। এটা চলতে পারে না। আজ যারা চুরি করছে, তাদের দায় আমাদের দিদিকে নিতে হচ্ছে। আমরা চাই না দিদির বদনাম হোক।’‌ সুতরাং সুজন চক্রবর্তীকে জবাব দিয়ে দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলার মুখ খবর

Latest News

মালদায় তৃণমূলের ‘‌শুদ্ধিকরণ’‌, মুখ্যমন্ত্রীর ছবি হাতে মানুষের দুয়ারে কাউন্সিলর স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন বেড়েছে ফ্যামিলি পেনশনারদের, কত লাভ হবে প্রবীণ করদাতাদের একধাক্কায় 'হাওয়া' ১ ট্রিলিয়ন ডলার! ২০ মাসে সবচেয়ে বড় ধস মার্কিন শেয়ার বাজারে শিবলিঙ্গে নিবেদিত জল গ্রহণে সারে দুরারোগ্য ব্যাধি, কিন্তু আছে বিশেষ কিছু নিয়ম বোর্ড সভাপতির অপশাসন! আইসিসির দ্বারস্থ আমেরিকা ক্রিকেটের ডিরেক্টররা! ৯ মাস ঘোরার মতো সময় নেই, তাই ভারতের কোচ হতে চাননি! অবস্থান স্পষ্ট করলেন নেহরা সন্দেশখালিতে ‘‌একলব্য মডেল’‌ স্কুলের প্রস্তাব শমীকের, ইস্যু জিইয়ে রাখতে নয়া কৌশল ঢাকায় মৃত্যু এক হিন্দু ছাত্রীর, এখনও হিংসার বলি ২০১, আজ কেমন আছে বাংলাদেশ? ওটা প্রথম নয়, বিষ্ণোই গ্যাং আগেও আমাকে জখম করার চেষ্টা করেছে : সলমন খান শহরে পা রাখলেন মোহনবাগানের নতুন বিদেশি টম! বিমানবন্দরে উষ্ণ অভ্যর্থনা সমর্থকদের

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.