বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুলিশ - বনধ সমর্থকদের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র মালদার সুজাপুর, জ্বলল পুলিশের ২টি গাড়ি
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

পুলিশ - বনধ সমর্থকদের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র মালদার সুজাপুর, জ্বলল পুলিশের ২টি গাড়ি

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। এমনকী শূন্যে গুলিও ছুড়তে হয় পুলিশকে।

বাম কংগ্রেসের ডাকা ২৪ ঘণ্টার ভারত বনধকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার মালদার সুজাপুরে। অভিযোগ, ২টি পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেন বনধ সমর্থকরা। অভিযোগের তির কংগ্রেসের দিকে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে কংগ্রেস।

বুধবার বনধের সমর্থনে সুজাপুরে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন বনধ সমর্থকরা। ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয় পুলিশ। অভিযোগ, এর পরই পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছুড়তে শুরু করেন বনধ সমর্থকরা। পালটা পুলিশ তাড়া করে অবরোধকারীদের। এরই মধ্যে জ্বলতে শুরু করে পুলিশের ২টি গাড়ি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। এমনকী শূন্যে গুলিও ছুড়তে হয় পুলিশকে।

স্থানীয় বিধায়ক ইশা খান চৌধুরী যদিও কংগ্রেসের বিরুদ্ধে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ খারিজ করেছেন। একটি ভিডিয়ো ফুটেজ দেখিয়ে তাঁর দাবি, পুলিশের পোশাক পরা এক ব্যক্তিই গাড়িতে আগুন ধরিয়েছেন। ঘটনার পিছনে চক্রান্ত দেখছে জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব।

মালদা জেলা কংগ্রেসের এক নেতার দাবি, মুর্শিদাবাদে ট্রেন ভাঙচুরের পিছনে যেমন আরএসএস-এর হাত মিলেছে এক্ষেত্রেও তদন্ত হলে তেমনই কিছু উঠে আসবে। তাঁর কথায়, বনধ সফল করতে কংগ্রেস ভাঙচুরের বিরোধী। কে বা কারা পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে তা পুলিশই খুঁজে বার করুক।

সিপিএমের মালদা জেলা কমিটির সম্পাদক অম্বর মিত্র বলেন, পুলিশের প্ররোচনাতেই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

মালদার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে আরও বাহিনী পাঠানো হয়েছে।

বন্ধ করুন