বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জাওয়াদ শঙ্কায় উধাও শীত, সকাল থেকেই মুখ ভার আকাশের, সতর্কতা জারি জেলাগুলিতে
দিঘা সৈকতে কালে মেঘের ঘনঘটা (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

জাওয়াদ শঙ্কায় উধাও শীত, সকাল থেকেই মুখ ভার আকাশের, সতর্কতা জারি জেলাগুলিতে

  • জাওয়াদের আগমনে আপাতত ছুটি শীতের। আজ বিকেল থেকেই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়বে বাংলার জেলাগুলিতে।

শনিবার ও রবিবার দিনটা কলকাতা ও উপকূলের জেলাগুলিতে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া থাকবে৷  কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই বৃষ্টি হবে। এদিকে শনিবার শকাল থেকেই দক্ষিণবঙ্গে উধাও শীত। জাওয়াদের আগমনেই আপাতত ছুটি শীতের। আলিপুর হাওয়া অফিসের সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ আজ সকালে উপস্থিত হয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ-ওড়িশা উপকূলে। পাঁচ তারিখ পৌঁছাবে পুরী। তারপরই বাংলামুখী হবে জাওয়াদ।

শুক্রবার পর্যন্ত কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলির আকাশ ছিল পরিষ্কার৷ তবে আজ সকাল থেকেই মহানগরীর আকাশের মুখ ভার। আপাতত অবশ্য বাতাস বইছে না। ইতিমধ্যেই আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আজ উপকূলবর্তী প্রত্যেকটি জেলাগুলিতে রয়েছে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে দুই মেদিনীপুর জুড়ে। ভারী বৃষ্টি হবে হাওড়া, ঝাড়গ্রাম সহ দুই ২৪ পরগনায়। 

শনিবার মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উপকূলবর্তী পূর্ব মেদিনীপুরে। তাই কমলা সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। তাছাড়া মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দুই ২৪ পরগনা, ঝাড়গ্রাম এবং হাওড়াতেও। দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, কলকাতা, হুগলি, ঝাড়গ্রাম ও হাওড়া জেলায় শনিবার বজ্রবিদ্যুৎসহ ৩০-৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইবে। শনিবার থেকে উপকূলীয় অঞ্চলগুলিতে সর্বোচ্চ ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইবে৷

আজ বিকেল থেকেই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব অনুভব করতে পারবেন উপকূলবর্তী জেলার বাসিন্দারা। বিকেল থেকে বাড়বে সাগরের উপরে হাওয়ার গতি। রবিবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে৷ পরদিন বৃষ্টি হবে নদিয়া, মুর্শিদাবাদ এবং দুই ২৪ পরগনায়। সোমবার কলকাতা সহ হাওড়া, হুগলিতে হাওয়া বইবে ৩০ কিমি বেগে।

 

বন্ধ করুন