বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > NRS থেকে করোনা আক্রান্ত ২ প্রসূতিকে ছিনিয়ে করে পালাল আত্মীয়রা, তাকিয়ে দেখল পুলিশ
NRS  হাসপাতল, কলকাতা।
NRS হাসপাতল, কলকাতা।

NRS থেকে করোনা আক্রান্ত ২ প্রসূতিকে ছিনিয়ে করে পালাল আত্মীয়রা, তাকিয়ে দেখল পুলিশ

  • রবিবার সকালে ২ রোগীকে PPE পরিয়ে পুলিশি পাহারায় সরকারি অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয়। অ্যাম্বুল্যান্স হাসপাতালের গেটের কাছে পৌঁছতেই হামলা চালান রোগীর আত্মীয়রা।

খাস কলকাতা শহরে NRS মেডিক্যাল কলেজের দোরগোড়া থেকে করোনা রোগী ছিনতাই। করোনা পজিটিভ ২ প্রসূতিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেল পরিবারের লোকেরা। রবিবার এই ঘটনায় হাসপাতাল চত্বরে চাঞ্চল্য ছড়ায়। পুলিশ কর্মীরা থাকলেও রোগীর পরিজনদের মারমুখি আচরণে হাত গুটিয়ে নেন তাঁরা। এর পর বন্ড সই করিয়ে ২ রোগীকে নিয়ে চম্পট দেয় তাদের আত্মীয়রা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, স্ত্রীরোগ বিভাগের ১৩ ও ৪০ নম্বর বেডে থাকা ওই ২ রোগীর বয়স যথাক্রমে ৪৫ ও ১৭। গত ১৪ জুলাই তাদের করোনা পরীক্ষার জন্য লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। গত ১৬ জুলাই তাদের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এর পর কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের মাদার অ্যান্ড চাইল্ড হাবে পাঠানোর তোড়জোড় শুরু হয়। 

রবিবার সকালে ২ রোগীকে PPE পরিয়ে পুলিশি পাহারায় সরকারি অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয়। অ্যাম্বুল্যান্স হাসপাতালের গেটের কাছে পৌঁছতেই হামলা চালান রোগীর আত্মীয়রা। অ্যাম্বুল্যান্স থেকে প্রসূতিদের বার করে পিপিই খুলে ফেলেন। এর পর ওই প্রসূতিদের তাঁরা বাড়ি নিয়ে যাবেন বলে দাবি করতে থাকেন। হুমকি দেন, বাড়ি নিয়ে না যেতে দিলে ভাঙচুর হবে হাসপাতালে। 

রোগীর আত্মীয়দের রণমূর্তি দেখে পিছু হঠেন পুলিশকর্মীরা। তাদের রোখার কোনও চেষ্টা করেননি হাসপাতালের কর্মীরাও। এর পর বন্ড সই করে ২ রোগীকে নিয়ে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান তাঁরা। 

এর আগেও NRS-এর ফিভার ক্লিনিক থেকে ১২ জন রোগী উধাও হয়ে গিয়েছিল। তাদের মধ্যে ৪ জনের মৃত্যুও হয়েছে। তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয় প্রশাসন। এবার পুলিশ – প্রশাসন কী করে তা দেখার। 

 

বন্ধ করুন