বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মেয়ের জন্য পথ চেয়ে বৃদ্ধা মা, পুজোয় বাড়ি ফিরতে পারবেন অর্পিতা?
মায়ের সঙ্গে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। সংগৃহীত ফাইল ছবি

মেয়ের জন্য পথ চেয়ে বৃদ্ধা মা, পুজোয় বাড়ি ফিরতে পারবেন অর্পিতা?

  • এবার অর্পিতার পাড়ার পুজো ৭৫ বছরে পা দিল। বিজয়া সম্মিলনীতেও অর্পিতা একবার পাড়ার দোকানে বলে গিয়েছিলেন, যা মিষ্টি লাগে দিয়ে দেবেন। খরচ তিনিই দিয়ে দেবেন। পাড়ার মেয়ের শেকড়ের এই টান ভালো লেগেছিল অনেকের। আর সেই মেয়েই এখন গরাদের ওপারে।

সামনেই পুজো। আলোয় ভাসবে গোটা বাংলা। কিন্তু পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায় কি পুজোয় বাড়ি ফিরতে পারবেন? পুজোয় লাল টুকটুকে শাড়ি পরে বেলঘরিয়ার বাড়িতে আসবেন, সেটা কী এবার সম্ভব হবে? বাড়িতে রয়েছেন অর্পিতার বৃদ্ধা মা। একাকী। প্রতি বছর পুজোর দিনগুলোতে অর্পিতার জন্য অপেক্ষা করে থাকতেন মা। এবারও পথ চেয়ে বসে থাকবেন মা। জেলবন্দি থাকলেও হাজার হোক মেয়ে। বেলঘরিয়ার দেওয়ানপাড়ায় মুখোপাধ্যায় বাড়িতে উৎসবের রঙ এখন একেবারেই ফিকে হয়ে আছে। যাকে নিয়ে মায়ের মুখে জ্বলে উঠত উৎসবের আলো সেই মেয়েই তো আজ গরাদের ওপারে।

ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে কোটি কোটি টাকা। সামনে আসছে অর্পিতার বৈভবের কথা। কিন্তু এসব থেকে হয়তো অনেক দূরে চোখের জল ফেলছেন অর্পিতার মা মিনতি মুখোপাধ্যায়। সব কেমন ওলটপালট হয়ে গিয়েছে গত কয়েকদিনে। সূত্রের খবর, জেলের ভেতর থেকেই মায়ের ব্যাপারে খোঁজখবর নেন অর্পিতা। ওষুধ ঠিকঠাক খাচ্ছে কি না, কেমন রয়েছেন এসব। আর পুজোর দিনগুলোতে হয়তো জেলের মধ্যে ভেসে আসবে উৎসবের গান। কিন্তু সেই গান কি আদৌ মন ভালো রাখবে অর্পিতার?

পাড়ার লোকজন বলছেন মাঝেমধ্যে অষ্টমীর দিন অঞ্জলি দিতে আসতেন তিনি। তখন একেবারে পাড়ার মেয়ে। মা মিনতিও পাড়ার পুজোয় জড়িয়ে থাকতেন। কিন্তু এবার তিনি সেসব থেকে নিজেকে কিছুটা দূরে রেখেছেন। এবার অর্পিতার পাড়ার পুজো ৭৫ বছরে পা দিল। বিজয়া সম্মিলনীতেও অর্পিতা একবার পাড়ার দোকানে বলে গিয়েছিলেন, যা মিষ্টি লাগে দিয়ে দেবেন। খরচ তিনিই দিয়ে দেবেন। পাড়ার মেয়ের শেকড়ের এই টান ভালো লেগেছিল অনেকের। আর সেই মেয়েই এখন গরাদের ওপারে।

বন্ধ করুন