বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মমতার ঘোষণার পরই তৎপরতা তুঙ্গে, তড়ঘড়ি স্কুল পরিষ্কার, নোডাল অফিসার নিয়োগের নির্দেশ শিক্ষা দফতরের
তড়ঘড়ি স্কুল পরিষ্কারের নির্দেশ শিক্ষা দফতরের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

মমতার ঘোষণার পরই তৎপরতা তুঙ্গে, তড়ঘড়ি স্কুল পরিষ্কার, নোডাল অফিসার নিয়োগের নির্দেশ শিক্ষা দফতরের

  • প্রতিটি জেলাশাসককে চিঠি দিয়ে নোডাল অফিসার মনোনীত করতে বলা হয়েছে শিক্ষা দফতরের তরফে। করোনা বিধিনিষেধ মেনে স্কুল খোলার উপর নজর রাখতেই এই নোডাল অফিসার নিয়োগের নির্দেশ।

সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন যে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকেই রাজ্যে খুলছে স্কুলের দরজা। এই ঘোষণার পরই তৎপর হয়ে উঠল শিক্ষা দফতর। প্রতিটি জেলাশাসককে চিঠি দিয়ে নোডাল অফিসার মনোনীত করতে বলা হয়েছে শিক্ষা দফতরের তরফে। করোনা বিধিনিষেধ মেনে স্কুল খোলার উপর নজর রাখতেই এই নোডাল অফিসার নিয়োগের নির্দেশ। পাশাপাশি এই নোডাল অফিসার প্রশাসন ও স্কুলের মধ্যে সমন্বয় রক্ষা করবেন। স্কুল শিক্ষা দফতরের কমিশনার এএন বিশ্বাস রাজ্যের নোডাল অফিসার হিসেবে রাজ করবেন। পাশাপাশি স্কুলগুলিকে ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ক্লাসরুমলিকে পরিষ্কার করার নির্দেশও দিয়েছে শিক্ষা দফতর।

এদিকে স্কুলগুলি যাতে সময়মতো ক্লাসরুম পরিষ্কার করেন, তা দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে জেলাশাসকদের উপর। এদিকে শিক্ষা দফতরের তরফে জানানো হয়েছে যে স্কুল খোলার আগের দিন স্কুলে যেতে পারবেন শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীরা। এদিকে প্রয়োজনে হোস্টেলও খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে স্কুলগুলিকে। তবে হোস্টেলেও কঠোর ভাবে করোনা বিধি মানার উপর জোর দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকালই মমতা ঘোষণা করেন যে অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়ারা ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে স্কুলে যেতে পারবে। নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের আধঘণ্টা আগে পড়ুয়াদের স্কুলে পৌঁছতে হবে। এই আবহে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির প্র্যাকটিকাল ক্লাসের উপর জোর দিয়ে নির্দেশিকা জারি করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। উল্লেখ্য, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা ঘনিয়ে এসেছে। স্কুল খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেওয়ায় এর আগে সিক্ষা দফতরের তরফে বিশেষ ভাবে প্র্যাকটিকাল ক্লাসের ভিডিয়ো আপলোড করার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে আপাতত স্কুল খুলে যাওয়ায় প্র্যাকটিকাল ক্লাস করায় আর কোনও বাধা রইল না পড়ুয়াদের। তবে এক্ষেত্রেও করোনাবিধি মেনেই ক্লাস করতে হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা দফতর।

 

বন্ধ করুন