বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > টিকা নিলেই ঢোকা যাবে দুর্গামণ্ডপে? নাকি করোনা আবহে এবারও বন্ধ ঠাকুর দেখা!
দুর্গাপুজো। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
দুর্গাপুজো। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)

টিকা নিলেই ঢোকা যাবে দুর্গামণ্ডপে? নাকি করোনা আবহে এবারও বন্ধ ঠাকুর দেখা!

  • হাতে রয়েছে ১০০ দিনেরও কম। তাই এখন থেকেই পরিকল্পনা করতে শুরু করল পুজো আয়োজকরা।

দুর্গাপুজো দেখতে গেলে বাধ্যতামূলক করা হোক টিকা। করোনা আবহে এমন নিয়ম চালুর চিন্তা ভাবনা করছেন পুজো আয়োজকদের ফোরামের সদস্যরা। চলতি বছরে ২০২০ সালের থেকেও গুরুতর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়েছিল দেশকে। এই পরিস্থিতিতে এবছরও কি অনলাইনে প্যান্ডেল দেখে মন ভরাতে হবে? এখনও এই সংক্রান্ত স্পষ্ট ধারণা নেই কারোর কাছে। এদিকে সময় ক্রমেই ঘনিয়ে আসছে। হাতে রয়েছে ১০০ দিনেরও কম। তাই এখন থেকেই পরিকল্পনা করতে শুরু করল পুজো আয়োজকরা।

বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব পালনের লক্ষ্যে নিয়মের খসড়া তৈরি করতে শুরু করেছে 'ফোরাম ফর দুর্গোৎসব কমিটি'। জানা গিয়েছে, সংক্রমণের আবহে তিনদিক খোলা প্যান্ডেল তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আয়োজকরা। গতবার এই পরামর্শ দিয়েছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি ফোরামের প্রস্তাব, ১৫ থেকে ২৫ জনের বেশি মানুষকে একসঙ্গে মণ্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন না। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ক্লাবের মাত্র ১০ থেকে ১৫ জন সদস্য একসঙ্গে মণ্ডপের ভিতরে থাকতে পারবেন।

মণ্ডপ সজ্জার সঙ্গে যুক্ত কারিগর, ঢাকী, স্বেচ্ছাসেবক, পুরোহিতদের টিকার দু'টো ডোজ নিতে হবে বলে প্রস্তাব ফোরামের। এছাড়া মণ্ডপে ঢুকতে ইচ্ছুক দর্শনার্থীদের জন্যও টিকা বাধ্যতামূলক করার কথা ভাবছে কমিটিগুলি। যদিও তা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক থাকছে আগের বারের মতোই। এছাড়া প্রতিটি মণ্ডপে স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা রাখতে হবে আয়োজকদের। অবশ্য পুজো হবে কি হবে না, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নিজেদের দিকটা গুছিয়ে রাখতে চাইছেন আয়োজকরা।

 

বন্ধ করুন