বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > উপসর্গহীন করোনা সংক্রমিতদের চিহ্নিত করতে কলকাতা পুরসভার হাতিয়ার পালস অক্সিমিটার
পালস অক্সিমিটার। ফাইল ছবি
পালস অক্সিমিটার। ফাইল ছবি

উপসর্গহীন করোনা সংক্রমিতদের চিহ্নিত করতে কলকাতা পুরসভার হাতিয়ার পালস অক্সিমিটার

  • এতদিন এরাজ্যে শুধুমাত্র থার্মাল গান দিয়ে শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে করোনা রোগী চিহ্নিত করা হত। কিন্তু উপসর্গহীন করোনা রোগীর দেহের তাপমাত্রা স্বাভাবিকই থাকে।

কলকাতায় উপসর্গহীন করোনা রোগীদের চিহ্নিত করতে নতুন যন্ত্র ব্যবহার করবেন পুরকর্মীরা। পালস অক্সিমিটার নামে সহজলভ্য এই যন্ত্রের মাধ্যমে খুব সহজেই রক্তে দ্রবীভূত অক্সিজেনের মাত্রা নির্ধারণ করা যায়। যা থেকে সহজেই সম্ভাব্য করোনা রোগী চিহ্নিত করা সম্ভব। 

পশ্চিমবঙ্গের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, কলকাতায় উপসর্গহীন করোনা রোগীদের চিহ্নিত করতে এবার থেকে পালস অক্সিমিটার নিয়ে বাড়ি বাড়ি যাবেন পুরকর্মীরা। পরীক্ষা করবেন মানুষের শরীরে দ্রবীভূত অক্সিজেনের পরিমান। 

এতদিন এরাজ্যে শুধুমাত্র থার্মাল গান দিয়ে শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে করোনা রোগী চিহ্নিত করা হত। কিন্তু উপসর্গহীন করোনা রোগীর দেহের তাপমাত্রা স্বাভাবিকই থাকে। ফলে থার্মাল গান দিয়ে তা ধরা অসম্ভব। পালস অক্সিমিটারের সাহায্যে তাদের চিহ্নিত করা সম্ভব হবে বলে দাবি প্রশাসনের।

চলতি সপ্তাহে নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে প্রতিটি আবাসনে কয়েকটি করে এই যন্ত্র কিনে রাখার পরামর্শ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, যার দরকার সে পরীক্ষা করে নেবে। 

করোনা আক্রান্ত হলে ফুসফুসের বাতাস লেনদেনের ক্ষমতা কমে যায়। যার ফলে আক্রান্ত আক্রান্তের রক্তেও কমে যায় অক্সিজেনের মাত্রা। যা খুব সহজে সনাক্ত করতে পারে পালস অক্সিমিটার নামে এই যন্ত্র। 

 

বন্ধ করুন