বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্বাস্থ্যের উপর বাড়তি নজর, বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর হাতে দেখা গেল ফিটনেস ব্যান্ড
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়

স্বাস্থ্যের উপর বাড়তি নজর, বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর হাতে দেখা গেল ফিটনেস ব্যান্ড

  • অধিবেশনের প্রথম দিনেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্য সচেতন রূপ ধরা পড়ল ক্যামেরায়।

বিধানসভায় নতুন অধিবেশনের সূচনা হল শুক্রবার। আর অধিবেশনের প্রথম দিনেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্য সচেতন রূপ ধরা পড়ল ক্যামেরায়। এমনতেই স্বাস্থ্য সচেতন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর নিজের দাবি, গত ৩০ বছর ধরে ভাত খান না তিনি। ব্যস্তাতর চোটে দিনে একবেলা পরিপূর্ণ আহার করেন। তবে সময় বের করে প্রতিদিন নিয়মিত ট্রেড মিলে শরীর চর্চা করেন। তেলেভাজা অন্যদের খাওয়ালেও নিজে খান না। এহেন স্বাস্থ্য সচেতন মুখ্যমন্ত্রীর হাতে শুক্রবার দেখা গেল ফিটনেট ব্যান্ড।

এর আগেও বেশ কয়েকবার মুখ্যমন্ত্রীর হাতে ফিটনেস ব্যান্ড দেখা গিয়েছে। ২৮ জুন নবান্ন থেকে সাংবাদিক বৈঠক করার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে ছিল ফিটনেস ব্যান্ড। ২৪ জুনও দেখা মিলেছিল মমতার ফিটনেস ব্যান্ডের। সাধারণত ফিটনেস ব্যান্ডগুলি হার্ট বিট রেট, শরীরের অক্সিজেনের মাত্রা, কতটা হাঁটলেন, তার পরিসংখ্যান কতটা দিনে ঘুমোচ্ছেন তার পরিসংখ্যান সহ একাধিক স্বাস্থ্যের খুঁটিনাটি তথ্য দেয়।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের সময় থেকেই চিকিৎসকদের নজরদারিতে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। চিকিৎসকদের বেঁধে দেওয়া বেশ কিছু বিধিনিষেধ মেনে চলতে হচ্ছে তাঁকে। তবে তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর তাঁর হাতে ফিটনেস ব্যান্ড দেখা যাওয়ায় অনেকেই অবাক হয়েছেন। এত বছর ধরে মমতার সাধাসিধে জীবনযাত্রার সঙ্গেই পরিচিত ছিল গোটা দেশ। এই ফিটনেস ব্যান্ডের কারণে রাজনৈতিক মহলে তিনি সমালোচিত হন কি না, সেই দিকে নজর অনেকের। তবে এটাও হতে পারে চিকিৎসকের পরামর্শেই হয়ত তিনি এই হেল্থ ব্যান্ড ব্যবহার করছেন। পাশাপাশি থাকতে পারে ২০২৪ সালের আগে সুস্থ থাকার তাগিদ।

বন্ধ করুন