বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Pollution: বিধি মেনেই গান বাজাতে হবে পুজো মণ্ডপে, দিতে হবে মুচলেকাও
পুজোর প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। (PTI Photo) (PTI)

Pollution: বিধি মেনেই গান বাজাতে হবে পুজো মণ্ডপে, দিতে হবে মুচলেকাও

  • পুজোর সময় যাতে দুষণ কোনওভাবেই না ছড়ায় সেটা নিশ্চিত করতে চাইছে পর্ষদ। এবার এনিয়ে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

এবার পুজোয় মাইক বা বক্স বাজানো নিয়ে আরও কড়া হচ্ছে রাজ্য। শব্দ দুষণের পাশাপাশি সার্বিকভাবে দুষণ রোধে একেবারে কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য দুষণ পর্ষদ। বৃহস্পতিবার পরিবেশকর্মীদের সংগঠন সবুজ মঞ্চ ও একাধিক সংগঠনের সঙ্গে পর্ষদের মিটিং ছিল। সেখানেই মাইক বাজানো, পুজোর দুষণ রোধে ব্যবস্থা সংক্রান্ত ব্যাপারে আলোচনা হয়। এরপরই জানিয়ে দেওয়া হয়, এবার কোনওভাবেই সাউন্ড লিমিটর ছাড়া শব্দযন্ত্র ব্যবহার করা যাবে না। ডিজে বাজানো যাবে না কোনওভাবেই।

এর সঙ্গে থার্মোকল, ১০০ মাইক্রনের কম ঘনত্ববিশিষ্ট প্লাস্টিকের ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এদিকে শব্দ নিয়ন্ত্রক যন্ত্রে পর্ষদের বিশেষ স্টিকার লাগাতে হবে। এটা মাইকের ব্যবসায়ীদের নিশ্চিত করতে হবে।

এর সঙ্গেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সবুজ বাজি বাদ দিয়ে কোনও শব্দবাজি ফাটানো যাবে না। মোটের উপর দুষণ রোধে সমস্ত পদক্ষেপগুলি অত্যন্ত কড়াকড়িভাবে প্রয়োগ করতে চাইছে পর্ষদ। কিন্তু বাস্তবে সেটি কতটা প্রয়োগ করা হবে তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই গিয়েছে।

বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, প্রতিবারই পুজোর আগে দুষণ রোধে মিটিং হয়। নানা কড়াবিধির কথাও জানানো হয়। কিন্তু বাস্তবে অনেকক্ষেত্রেই তার প্রতিফলন চোখে পড়ে না। মণ্ডপে, মণ্ডপে তারস্বরে মাইক বাজে। এনিয়ে প্রতিবাদ করলে ভুগতে হয় সাধারণ মানুষকে। তবে এবার জানানো হয়েছে শব্দযন্ত্র যাতে তারস্বরে না বাজানো হয়, বিধি মেনেই যাতে সব পদক্ষেপ নেওয়া হয় সেব্যাপারে সংশ্লিষ্ট পুজো কমিটিকে মুচলেকা দিতে হবে। আর নিয়ম ভঙ্গ করলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে।

বন্ধ করুন