বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলায় গ্রীষ্মের আগমন,ঊর্ধ্বমুখী পারদে ক্রমেই বাড়বে অস্বস্তি,পাহাড়ে হবে বৃষ্টি

বাংলায় গ্রীষ্মের আগমন,ঊর্ধ্বমুখী পারদে ক্রমেই বাড়বে অস্বস্তি,পাহাড়ে হবে বৃষ্টি

ঊর্ধ্বমুখী পারদে ক্রমেই বাড়বে অস্বস্তি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য বুরহান কিনু/হিন্দুস্তান টাইমস)

ভোরে এখনও কিছুটা ঠান্ডা ভাব রয়েছে, কুয়াশাও থাকছে। তবে বেলা বাড়তেই রোদের তেজ আরও বাড়বে।

ক্রমেই তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছে বাংলায়। বসন্তের বিদায়ে গ্রীষ্মের আগমনের ইঙ্গিত মিলেছে। ভোরে অবশ্য এখনও কিছুটা ঠান্ডা ভাব রয়েছে। তবে বেলা বাড়তেই রোদের তেজ বাড়ছে। সঙ্গে বাড়ছে অস্বস্তি। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, আগামী কয়েকদিনে ক্রমেই তাপামাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমুখী হবে। উত্তরবঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হলেও মোটের উপর বাংলার বাকি জেলার আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে বলেই পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের।

মঙ্গলবার ভোরে কুয়াশা ছিল। বেলা বাড়লে রৌদ্রজ্জ্বল হবে আকাশ। সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩১ ডিগ্রি এবং ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ঘোরাফেরা করবে। সোমবার কলকাতা এবং তৎসংলগ্ন অঞ্চলের তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ৩১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। যা স্বাভাবিক। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক ডিগ্রি বেশি। এদিকে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পংয়ের কয়েকটি জায়গা এবং সিকিমে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে রাজ্যের বাকি অংশে শুষ্ক আবহাওয়া এবং গরম বৃদ্ধি।

আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এবার ধীরে ধীরে রাতের তাপমাত্রাও বাড়বে। এদিকে ভূমধ্যসাগরের থেকে আসা ঠান্ডা হাওয়া রাজ্যে ঢুকছে। বঙ্গোপসাগর থেকে আসা গরম হাওয়ার সঙ্গে ঠান্ডা হাওয়া মিলে জলীয় বাষ্প সৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে মেঘের সৃষ্টি হবে। আর এর জেরে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে রাজ্যে। এদিকে ভোরের দিকে ঠান্ডা হাওয়া বইলেও গরমের আগমনী বার্তা ভেসে আসছে।

বন্ধ করুন