বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Suvendu Adhikari: ‘শুভেন্দু বিধানসভায় এলেই আমরা বলব ডোন্ট টাচ মাই বডি’, কটাক্ষ লাভলি মৈত্রের
লাভলি মৈত্র ও শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি

Suvendu Adhikari: ‘শুভেন্দু বিধানসভায় এলেই আমরা বলব ডোন্ট টাচ মাই বডি’, কটাক্ষ লাভলি মৈত্রের

  • গতকাল বিধানসভা ভবনেও এ নিয়ে হাসি ঠাট্টার রেশ দেখা গেল তৃণমূলের মহিলা বিধায়কদের মধ্যে। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য থেকে শুরু করে জুন মালিয়া, লাভলি মৈত্র, অসীমা পাত্রদের শুভেন্দু ব্যবহার করা এই শব্দ ব্যবহার করেই হাসিতে বুঁদ থাকতে দেখা গেল। তাদের প্রত্যেকেই বিভিন্ন ভঙ্গিতে এই কথা বলতে দেখা যায়।

মঙ্গলবার নবান্ন অভিযানে বিজেপি শাসক দলের বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেও তৃণমূলের কাছে বড় প্রাপ্তি হল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ব্যবহার করা চারটি শব্দ। লালবাজারের মহিলা পুলিশ অফিসার শুভেন্দুকে আটকাতে গেলে তিনি বলেছিলেন, ‘ডোন্ট টাচ মাই বডি।’ শুভেন্দুর ব্যবহার করা এই চারটি শব্দ এখন খোরাকের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে তৃণমূলের কাছে। তা নিয়ে হাসি ঠাট্টায় মশগুল তৃণমূল। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই এ নিয়ে তৈরি হয়েছে নানান মিম। চলছে হাসি মশকরাও।

আরও পড়ুন: আপনি মহিলা, মায়ের জাত, মা আপনি আমার গায়ে হাত দেবেন না, এটাই বলেছিলাম: শুভেন্দু

গতকাল বিধানসভা ভবনেও এ নিয়ে হাসি ঠাট্টার রেশ দেখা গেল তৃণমূলের মহিলা বিধায়কদের মধ্যে। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য থেকে শুরু করে জুন মালিয়া, লাভলি মৈত্র, অসীমা পাত্রদের শুভেন্দু ব্যবহার করা এই শব্দ ব্যবহার করেই হাসিতে বুঁদ থাকতে দেখা গেল। তাদের প্রত্যেকেই বিভিন্ন ভঙ্গিতে এই কথা বলতে দেখা যায়। অধিবেশনে শুভেন্দু অধিকারী না থাকলেও একপ্রকার তার অদৃশ্য উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। গতকাল বিধানসভা অধিবেশনের আগে বিধানসভা হলে তৃণমূলের মহিলা বিধায়করা যখন হাসি ঠাট্টায় মশগুল তখন লাভলি মৈত্র বলেই ফেললেন, ‘বিধানসভায় উনি এলেই আমরা বলব ডোন্ট টাচ মাই বডি।’ এ প্রসঙ্গে তার কটাক্ষ, উনি নিজেই বলেন যে উনি নাকি মহিলাদের সম্মান করেন। অথচ বিরোধী দলনেতাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে সবচেয়ে বেশি বাজে কথা বলেন। নবান্ন অভিযানে বিজেপির কমেডি দেখলাম, ভালোই লাগল।’

শুভেন্দুর ব্যবহার করা শব্দকে অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের একটি সিনেমার ডায়লগের সঙ্গে তুলনা করে জুন বলেন, ‘সুচিত্রা সেন ওই ডায়লগটা এতটাই ফেমাস করে দিয়ে গেছেন যে শুভেন্দু অধিকারী যখন সেই শব্দটা বললেন তখন আমার সেটাই মনে পড়ল।’ যদিও রাজনৈতিকভাবে কোনও মন্তব্য করতে চাননি জুন মালিয়া।

বন্ধ করুন