বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > West Bengal Assembly Polls: সিপিএম–কংগ্রেস জোটে সিলমোহর, নিরপেক্ষ ৮ সদস্য
আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়াইয়ের সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিল সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটি।
আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়াইয়ের সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিল সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটি।

West Bengal Assembly Polls: সিপিএম–কংগ্রেস জোটে সিলমোহর, নিরপেক্ষ ৮ সদস্য

  • বিমান–অধীর দ্বন্দ্ব দেখা দিলেও বিধানসভা নির্বাচনে জোট বাঁধতে সিপিএম–কংগ্রেস সেই কাছাকাছিই এল। 

বাংলা–সহ তিন রাজ্যের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়াইয়ের সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিল সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটি। তবে দলের এই লাইনের সঙ্গে সহমত পোষণ করলেন না কেন্দ্রীয় কমিটির ৮ নেতা।

বিমান–অধীর দ্বন্দ্ব দেখা দিলেও সিপিএম–কংগ্রেস কাছাকাছি এল। এদিকে পলিটব্যুরো সায় দেওয়ার পরে কেন্দ্রীয় কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তামিলনাড়ু, বাংলা এবং অসমে কংগ্রেস–সহ ধর্মনিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক শক্তির সঙ্গে জোট বেঁধে বিধানসভা ভোটে লড়াই করবে। 

তামিলনাড়ুতে ডিএমকে’‌র সঙ্গে জোট, অসমেও কংগ্রেস–সহ অন্য দলের সঙ্গে, বাংলায় কংগ্রেসের সঙ্গে যৌথ কর্মসূচি চলছে। সেখানেও জোট করেই লড়াই করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কেরলে শুধু ব্যতিক্রম। সেখানে কংগ্রেসের সঙ্গে বামেদের মুখোমুখি লড়াই।

অন্যদিকে সূত্রের খবর, ৮ জন সদস্য জানিয়ে দেন, তাঁরা কোনও মত দেবেন না। অর্থাৎ ধরে নেওয়া যায়, কমিটির বাকি সদস্যেরা দলীয় লাইনের সঙ্গে সহমত। বৈঠকের পরে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি জানান, ‘রাজ্যভিত্তিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি আলাদা। তাই কেরল কেন ব্যতিক্রম, এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই! বাংলাতেও জ্যোতি বসুর আমলে সিপিএম–কংগ্রেসের লড়াই হয়েছে। এখন বিজেপি ও তৃণমূলের মোকাবিলায় আমরা সেখানে কংগ্রেসের সঙ্গে সমন্বয় করেছি।’ 

বাংলার কংগ্রেস অবশ্য এখনও যৌথ কর্মসূচির খসড়া তাদের পাঠায়নি। জানা গিয়েছে, আগামী ২৬ ও ২৭ নভেম্বর কৃষক প্রতিবাদ এবং ধর্মঘটকে সমর্থনের পাশাপাশি সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটি ঠিক করেছে, ইউএপিএ, এনএসএ, রাষ্ট্রদ্রোহিতার আইনে অভিযুক্তদের মুক্তি–সহ নানা দাবিতে ধর্মনিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক সব ধরনের সংগঠন ও ব্যক্তির বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার চেষ্টা হবে। এই লক্ষ্যে কর্মসূচি চলবে ২৬ নভেম্বর থেকে ২৬ জানুয়ারি।

 

বন্ধ করুন