বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজভবনে নজরদারি চলছে, পাচার হয়ে যাচ্ছে গোপন নথি, দাবি ধনখড়ের
রবিবার রাজভবনে অটল বিহারী বাজপেয়ীকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। (PTI)
রবিবার রাজভবনে অটল বিহারী বাজপেয়ীকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। (PTI)

রাজভবনে নজরদারি চলছে, পাচার হয়ে যাচ্ছে গোপন নথি, দাবি ধনখড়ের

  • প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপায়ীর স্মরণ অনুষ্ঠানে এই অভিযোগ করেন তিনি। যা নিয়ে পালটা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এবার রাজভবনের ওপর নজরদারির অভিযোগে সরব হলেন তিনি। রবিবার রাজভবনে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপায়ীর স্মরণ অনুষ্ঠানে এই অভিযোগ করেন তিনি। যা নিয়ে পালটা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। 

রাজ্যপাল বলেন, ‘রাজভবনে নজরদারি চলছে। এটা হওয়া উচিত নয়। সাবিধানিক প্রধানের দফতরে কী করে নজরদারি চলতে পারে? রাজভবনের কোনও নথি আমার অনুমতি ছাড়া বাইরে যেতে পারে না। কিন্তু রাজভবনের নথি বাইরে চলে যাচ্ছে। ইলেক্ট্রনিক অ্যাপের মাধ্যমে তা রাজভবনের নথি পাচার হচ্ছে। এই নিয়ে আমি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। অভিযোগ প্রমাণিত হলে কঠোর মূল্য চোকাতে হবে।’ 

বলে রাখি, শনিবার বিকেলে রাজভবনে ছিল স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দেন সমাজের নানা ক্ষেত্রের গুণীজনেরা। ছিলেন সেনাবাহিনীর আধিকারিকরাও। আমন্ত্রিত হলেও অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেননি মুখ্যমন্ত্রী বা কোনও সরকারি আমলা। পর দিন সকালেই বিস্ফোরক এই অভিযোগ করেন রাজ্যপাল। 

রাজ্যপালের অভিযোগে পালটা কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আঙ্কেলজি এখন দাবি করছেন, তিনি ও পশ্চিমবঙ্গের রাজভবনে নজরদারি চলছে। বিশ্বাস করুন, এই কাজটা আপনার গুজরাটের বসরা যে কারও থেকে ভাল করেন। আমরা তো তাদের কাছে শিশু।’

 

বন্ধ করুন