বাংলা নিউজ > কর্মখালি > সপ্তাহে ৪ দিন অফিস, ৩ দিন ছুটি! চালু হল ব্রিটেনের ১০০টি সংস্থায়

সপ্তাহে ৪ দিন অফিস, ৩ দিন ছুটি! চালু হল ব্রিটেনের ১০০টি সংস্থায়

ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস (HT Photo)

ই নীতির সমর্থকদের মতে, সপ্তাহে ৫ দিন অফিস করার নিয়ম এর আগের অর্থনৈতিক যুগের ভাবনা। বর্তমান যুগের নিয়ম অনুযায়ী মানুষ ৪ দিন কাজ করলেই সেটি আরও বেশি 'প্রোডাকটিভ' হবে। অর্থাত্ কর্মীরা পর্যাপ্ত বিশ্রাম পেলে আরও দ্রুত এবং নির্ভুলভাবে কাজ করবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সপ্তাহে ৪দিন অফিস। বাকি ৩ দিন ছুটি। কর্মীদের জন্য এমনই নিয়ম চালু করল ব্রিটেনের ১০০টি সংস্থা। না, পরীক্ষামূলক নয়। পাকাপাকিভাবেই এই সংস্থায় কর্মরত ২,৬০০ কর্মী এই সুবিধা পাবেন। আর তাতে তাঁদের বেতনেও হেরফের হবে না। যে বেতন পেতেন, সেটাই পাবেন।

আলোচ্য সংস্থাগুলির মধ্যে রয়েছে অ্যাটম ব্যাঙ্ক এবং গ্লোবাল মার্কেটিং সংস্থা অ্যাউইন-এর মতো বড় নামও। এই সব অফিসেই কর্মীরা মাত্র ৪দিন করে কাজ করবেন। ৩দিন ছুটি পাবেন। ভাবুন তো কত মজা! আরও পড়ুন: Message yourself: নিজেকেই মেসেজ করার ফিচার আনল WhatsApp!

ব্রিটেনের এই সংস্থাগুলির প্রতিটিতেই গড়ে প্রায় ৪৫০ জন কর্মী কাজ করেন। দ্য গার্ডিয়ানের রিপোর্ট অনুযায়ী, অ্যাউইনের সিইও জানিয়েছেন, 'সংস্থার ইতিহাসে এটি অন্যতম বড় পরিবর্তন।'

এই নীতির সমর্থকদের মতে, সপ্তাহে ৫ দিন অফিস করার নিয়ম এর আগের অর্থনৈতিক যুগের ভাবনা। বর্তমান যুগের নিয়ম অনুযায়ী মানুষ ৪ দিন কাজ করলেই সেটি আরও বেশি 'প্রোডাকটিভ' হবে। অর্থাত্ কর্মীরা পর্যাপ্ত বিশ্রাম পেলে আরও দ্রুত এবং নির্ভুলভাবে কাজ করবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

ব্রিটেনের এই নয়া কর্মী-বান্ধব নীতি সারা বিশ্বের নজর কেড়েছে। এর আগে প্রায় ৭০টি সংস্থায় ৩,৩০০ কর্মীর উপর ট্রায়াল চালিয়েছিল কেমব্রিজ এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। পর্যবেক্ষণ চালিয়েছিল বোস্টন কলেজ এবং থিঙ্ক ট্যাঙ্ক অটোনমি।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সেপ্টেম্বরে এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৮৮% সংস্থাই বলছে যে, সপ্তাহে ৪দিন কাজের নিয়মে তাঁদের পারফরম্যান্স ভাল হচ্ছে। ব্যবসা ভাল চলছে। ৯৫% সংস্থাই জানিয়েছে কাজের মান একই থেকেছে, এমনকি কিছু ক্ষেত্রে বেড়েছে।

এই ক্ষেত্রে অবশ্য সংস্থাগুলির অনেকে ৫দিন ৮ ঘণ্টা করে কাজের বদলে ৪ দিন ১০ ঘণ্টা করে কাজের পথে হেঁটেছে। এতে সপ্তাহে মোট ৪০ ঘণ্টাই কাজ হচ্ছে। কিন্তু রোজ মাত্র ২ ঘণ্টা বেশি কাজ করার ফলে আস্ত একটি দিন ছুটি পাচ্ছেন কর্মীরা। এতে তাঁরা বিশ্রাম, পরিবার, শখ, পড়াশোনা ইত্যাদি ক্ষেত্রে মনোযোগ দিতে পারছেন। কর্মীদের পর্যাপ্ত ছুটি মেলায় তাঁরা ৪দিন দ্বিগুণ উত্সাহে কাজও করছেন। আরও পড়ুন: ভারতীদের টাকা জমানোর অভ্যেসে দামি গাড়ির বিক্রি মার খাচ্ছে, বলছেন Mercedes কর্তা

ভারতেও এই বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করছে বেশ কিছু সংস্থা। তবে যেখানে বেশিরভাগ বেসরকারি সংস্থাতেই সপ্তাহে মাত্র ১ দিন ছুটি দেওয়া হয়, সেখানে ৪দিন ছুটির ভাবনা কতটা বাস্তবায়িত হবে, তাই নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

বন্ধ করুন