বাংলা নিউজ > কর্মখালি > Headmaster's Recruitment: হেডমাস্টারের পরীক্ষায় ফেল ৯৭% শিক্ষক! পড়ুয়াদের মতো ‘আউট অফ সিলেবাস’ অজুহাত
হেডমাস্টারের পরীক্ষায় ফেল ৯৭% শিক্ষক! দিলেন পড়ুয়াদের মতো ‘আউট অফ সিলেবাস’ অজুহাত। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

Headmaster's Recruitment: হেডমাস্টারের পরীক্ষায় ফেল ৯৭% শিক্ষক! পড়ুয়াদের মতো ‘আউট অফ সিলেবাস’ অজুহাত

  • Headmaster Recruitment 2022: প্রধান শিক্ষক পদে ৬,৪২১ জনকে নিয়োগের জন্য পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। পাশ করেছেন মাত্র ৪২১ জন। পড়ুয়াদের ঢঙে শিক্ষক সংগঠনের দাবি, ‘আউট অফ সিলেবাস’ প্রশ্ন এসেছিল। পাঠ্যক্রমের বাইরে থেকে প্রশ্ন আসার পাশাপাশি প্রশ্নপত্রও খুব কঠিন ছিল।

স্কুলের হেডমাস্টারের নিয়োগ পরীক্ষায় বসেছিলেন ১৩,০০০ জন শিক্ষক। প্রায় ৯৭ শতাংশ শিক্ষক উত্তীর্ণ হতে পারলেন না। সেই পরিস্থিতিতে তাঁরা কাট-অফ মার্কস কমানোর দাবি তুললেন। ঘটনাটি বিহারের।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিহার পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। প্রধান শিক্ষক পদে ৬,৪২১ জনকে নিয়োগের জন্য পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। গত বছর ১৫ অগস্ট মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার ঘোষণা করেছিলেন, রাজ্যের সরকারি প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুলে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিশেষ ক্যাডার তৈরি করা হবে। সেইমতো প্রথমবার বিহারে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পরীক্ষা হয়েছিল।

আরও পড়ুন: IBPS PO Recruitment 2022: ব্যাঙ্কে ৬,৪৩২ পদে নিয়োগের আবেদন শুরু, দেখুন ডিরেক্ট লিঙ্ক, কবে পরীক্ষা হবে?

কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য মাত্র ৪২১ জন কাট-অফ মার্কসের গণ্ডি পার করেছেন। তাও কাট-অফ মার্কস আহামরি ছিল না। জেনারেল প্রার্থীদের ৪০ শতাংশ নম্বর পেতে হত। অনগ্রসর শ্রেণির প্রার্থী এবং অত্যন্ত অনগ্রসর শ্রেণির প্রার্থীদের কাট-অফ মার্কস ছিল যথাক্রমে ৩৬.৫ শতাংশ এবং ৩৪ শতাংশ। তফসিলি জাতি, তফসিলি উপজাতি, মহিলা ও বিশেষভাবে সক্ষম প্রার্থীদের ক্ষেত্রে কাট-অফ মার্কস ৩২ শতাংশ ছিল।

বিষয়টি নিয়ে বিহারের শিক্ষা দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রধান শিক্ষকের নিয়োগের ফলাফল থেকেই স্পষ্ট যে সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের অবস্থা কতটা ভয়াবহ। উল্লেখ্য, ২০১১ সালে বিহারের প্রথম টেটে মাত্র ২.৮ শতাংশ প্রার্থী পাশ করেছিলেন। সেই পরিস্থিতিতে যোগ্যতামানের মাপকাঠি কমাতে বাধ্য হয়েছিল বিহার সরকার।

যদিও পড়ুয়াদের ঢঙে বিহারের মাধ্যমিক শিক্ষকদের সংগঠনের সভাপতি কেদারনাথ পান্ড দাবি করেন, ‘আউট অফ সিলেবাস’ প্রশ্ন এসেছিল। পাঠ্যক্রমের বাইরে থেকে প্রশ্ন আসার পাশাপাশি প্রশ্নপত্রও খুব কঠিন ছিল। প্রশ্নপত্রের ধরণও সম্পূর্ণ আলাদা ছিল বলে দাবি বিহারের মাধ্যমিক শিক্ষকদের সংগঠনের সভাপতি। সেইসঙ্গে তাঁর দাবি, শিক্ষকরা প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত সময় পাননি।

আরও পড়ুন: SSC CHSL 2021 Tier 2 Exam Date: কবে হবে পরীক্ষা? কবে টিয়ার ১-র নম্বর জানা যাবে?

কেন্দ্রীয় সরকারি চাকরি: দেড় বছরে ১০ লাখ নিয়োগ

আগামী দেড় বছরে প্রায় ১০ লাখ কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে কেন্দ্র। মূলত গ্রুপ 'বি' এবং গ্রুপ 'সি' শূন্যপদ পূরণের দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে। 'হিন্দুস্তান টাইমস'-কে একথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় কর্মীবর্গ দফতরের আধিকারিকরা।

বুধবার লোকসভায় কেন্দ্রীয় কর্মীবর্গ দফতরের পেশ করা পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আপাতত কেন্দ্রের বিভিন্ন দফতরে মোট ৯৭৯,৩২৭ শূন্যপদ আছে। গ্রুপ 'এ'-তে শূন্যপদের সংখ্যা ২৩,৪৫৪। গ্রুপ 'বি' পদে ১১৮,৮০৭ টি শূন্যপদ আছে। গ্রুপ 'সি'-তে শূন্যপদের সংখ্যা ৮৩৬,৯৩৬। সেইসঙ্গে একটি প্রশ্নের জবাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকারে নয়া পদ তৈরি এবং শূন্যপদ পূরণের দায়িত্ব আছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক বা দফতরের উপর। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শূন্যপদ পূরণের জন্য সব মন্ত্রক বা দফতরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন