বাংলা নিউজ > ক্রিকেট > হর্ষ ভোগলেকে চুপ করিয়ে দিলেন ভারতীয় পেসার! শান্ত শামির সেন্স অফ হিউমারে অবাক ভক্তরা

হর্ষ ভোগলেকে চুপ করিয়ে দিলেন ভারতীয় পেসার! শান্ত শামির সেন্স অফ হিউমারে অবাক ভক্তরা

শান্ত মহম্মদ শামির সেন্স অফ হিউমারে অবাক ভক্তরা

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মোহালিতে নেমেছিল টিম ইন্ডিয়া। এই ম্যাচে ভারতের পেসার মহম্মদ শামি দুরন্ত পারফরমেন্স করেন এবং ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন। নিজের শান্ত স্বভাবের জন্য পরিচিত শামি এবার নিজের সেন্স অফ হিউমারের প্রমাণ দিলেন।

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মোহালিতে নেমেছিল টিম ইন্ডিয়া। এই ম্যাচে ভারতের পেসার মহম্মদ শামি দুরন্ত পারফরমেন্স করেন এবং ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন। নিজের শান্ত স্বভাবের জন্য পরিচিত শামি এবার নিজের সেন্স অফ হিউমারের প্রমাণ দিলেন। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস শেষ হওয়ার পর তারই প্রমাণ দিলেন শামি। এদিনের ম্যাচে মহম্মদ শামির দুরন্ত পারফরমেন্সের ফলে ক্যাঙ্গারুদের রানকে ২৭৬ এর মধ্যে গুটিয়ে দেয় ভারত। ব্যাটিং-বান্ধব পিচে সুইং করে অজি ব্যাটারদের পাঁচ উইকট তুলে নেন শামি। এদিনের ম্য়াচে তিনি ১০ ওভার বল করে ৫১ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট শিকার করেন।

এরপরে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা মাত্র ৪৮.৪ ওভারে এই রান অর্জন করেছিল। তবে এর মাঝেই বোলিং-এর পাশাপাশি নিজের সেন্স অফ হিউমার দিয়ে সকলের মন জিতেছিলেন শামি। আসলে ইনিংসের মাঝখানে যখন শামিকে বিখ্যাত ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে প্রশ্ন করেছিলেন, তখন শামি তাঁকে যে উত্তরটা দিয়েছিলেন তাতে ভোগলে সম্পূর্ণ নির্বাক হয়ে যান। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই শামির এই উত্তর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

আসলে ম্যাচের প্রথম ইনিংসের পরে ভারতীয় বোলারকে হর্ষ জিজ্ঞাসা করেছিল যে সে আজ গরম অনুভব করছে কিনা। এতে শামি কোনও দ্বিধা না করেই উত্তর বলেন, ‘সম্ভবত হ্যাঁ, কারণ আপনারা এসি বক্সে বসে ছিলেন, আমরা মাঠে ছিলাম (হেসে)।’ তাঁর এই উত্তরে ভক্তরা বেশ মজা পেয়েছেন। এই সময়ে আরও কিছু কথার প্রসঙ্গ সামনে এসেছে। যেখানে হর্ষকে মহম্মদ শামি বলেছেন, ‘আপনারা এসি তে ছিলেন, আমি গরমে বাইরে ছিলাম। ফাস্ট বোলাররা উইকেট থেকে খুব বেশি কিছু পাচ্ছিল না তাই ধীরগতির ডেলিভারিগুলি করছিলাম এবং ঘুরে দাঁড়ানোর একটি ভালো বিকল্প পথ খুঁজছিলাম। এটা দলের জন্য এবং আপনার নিজের আত্মবিশ্বাসের জন্য ভালো।’

ম্যাচের কথা বললে, এদিন টস জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে ২৭৬ রানের মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ার অল উইকেট ডাউন হয়ে যায়। এদিনের ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার ৫৩ বলে ৫২ রান করছিলেন। জোশ ইংলিস ৪৫ বলে ৪৫ রান করেন। স্টিভ স্মিথ ৬০ বলে ৪১ রান করন। এছাড়াও মার্নাস ল্যাবুশান ৪৯ বলে ৩৯ রান ও গ্রিন ৫২ বলে ৩১ রান করে আউট হন। এদিন শামি পাঁচ উইকেট নেন এবং বুমরাহ, অশ্বিন ও জাদেজা একটি করে উইকেট শিকার করেন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রুতুরাজ ৭৭ বলে ৭১ রান ও গিল ৬৩ বলে ৭৪ রান করেন। তবে এদিন শ্রেয়স আইয়ারের ব্যাট থেকে সেভাবে রান আসেনি। কেএল রাহুল ৬৩ বলে অপরাজিত ৫৮ রান করেন এবং সূর্যকুমার যাদব ৪৯ বলে ৫০ রান করে আউট হন। এই ম্যাচ পাঁচ উইকেটে জিতে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল ভারত।

রোহিতদের প্রস্তুতির রোজনামচা, পাল্লা ভারি কোন দলের, ক্রিকেট বিশ্বকাপের বিস্তারিত কভারেজ, সঙ্গে প্রতিটি ম্যাচের লাইভ স্কোরকার্ড বিস্তারিত ক্রীড়াসূচি - এর জন্য চোখুন HT Bangla - তে

বন্ধ করুন