বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > ডায়মন্ড হারবারের তিন পুরসভায় দুটি বিরোধীশূন্য, নেই কোনও সন্ত্রাসের নালিশ
বজবজ এবং ডায়মন্ড হারবার পুরসভা বিরোধীহীন।

ডায়মন্ড হারবারের তিন পুরসভায় দুটি বিরোধীশূন্য, নেই কোনও সন্ত্রাসের নালিশ

  • এখানের তিন পুরসভা মহেশতলা, বজবজ ও ডায়মন্ড হারবার পুরসভায় নির্বাচন হয়েছিল। সব পুরসভাতেই দেখা গেল ঘাসফুলের জয়জয়কার।

আজ, বুধবার ১০৮টি পুরসভা নির্বাচনের ফলাফলে ধরাশায়ী বিজেপি। জেলায় জেলায় ঘাসফুল ঝড়ে কার্যত কাত বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে দেখা গেল, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের লোকসভা কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারের অন্তর্গত তিন পুরসভার দু’টিতে নেই কোনও বিরোধী। এখানের তিন পুরসভা মহেশতলা, বজবজ ও ডায়মন্ড হারবার পুরসভায় নির্বাচন হয়েছিল। সব পুরসভাতেই দেখা গেল ঘাসফুলের জয়জয়কার।

এদিকে বজবজ এবং ডায়মন্ড হারবার পুরসভা বিরোধীহীন। মহেশতলা পুরসভার ৩৫টি ওয়ার্ডের মধ্যে একটি মাত্র ওয়ার্ডে জয়ী হয়েছে কংগ্রেস। বাকি ৩৪টিতেই জয়ী হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে এখানের তিনটি পুরসভার কোনওটির ভোটেই বিরোধীরা বুথদখল, ছাপ্পা, সন্ত্রাসের অভিযোগ করেনি। আসলে এখানে সেভাবে সংগঠন নেই বলেই মনে করা হচ্ছে।

অন্যদিকে বজবজ পুরসভায় নির্বাচনের আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় পেয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। এই জয়ের কৃতিত্ব দলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেককেই দিয়েছেন বজবজের প্রবীণ তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক অশোক দেব। এখানে সেভাবে প্রচার করতে দেখা যায়নি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অথচ বিপুল ভোটে জয়ী হল তৃণমূল কংগ্রেস।

নির্বাচনে এই ব্যাপক সাফল্যের পর ডায়মন্ড হারবার লোকসভা এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তরুণ রায় বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের ওপর আস্থা রেখেছেন মানুষ। ২০১৪ সাল থেকে ডায়মন্ড হারবারে যেভাবে উন্নয়ন করেছেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তারও কোনও জবাব বিরোধীদের কাছে নেই। তাই তাঁরা এবারের পুরভোটে প্রার্থীই খুঁজে পাননি।’‌

বন্ধ করুন