বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > বালি (পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা) ভোট 2021 LIVE: জয়ী তৃণমূলের রানা চট্টোপাধ্যায়

বালি বিধানসভা কেন্দ্রে ভরাডুবি হয়েছে বৈশালী ডালমিয়ার। এই কেন্দ্রে জয়ী হয়েছেন তৃণমূলের রানা চট্টোপাধ্যায়। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন সিপিআইএমের দীপ্সিতা ধর।

এই কেন্দ্রে এবারে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন রানা চট্টোপাধ্যায়। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন বৈশালী ডালমিয়া। অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন সিপিআইএমের দীপ্সিতা ধর।

বাগনান, শ্যামপুর, জগৎবল্লভপুর ইত্যাদি কয়েকটি থানার কয়েকটি গ্রামে খননকার্য চালিয়ে সামান্য কিছু প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পাওয়া গিয়েছে। এছাড়া অন্যান্য জেলার মতো হাওড়া জেলাতেও পোড়ামাটির কারুকার্য—সহ অনেক প্রাচীন মন্দিরের অস্তিত্ব রয়েছে। প্রাচীন জৈন, বৌদ্ধ বা হিন্দু সাহিত্যে হাওড়া অঞ্চলের সুনির্দিষ্ট উল্লেখ নেই। গ্রিক বা চৈনিক লেখকদের রচনাতেও এই অঞ্চলের কোনো বিবরণ পাওয়া যায় না। তবে গবেষকদের ধারণা, প্রাচীনকালে রাঢ়ের অন্তর্গত সুহ্ম অঞ্চলের দক্ষিণাংশ হাওড়া ও অবিভক্ত মেদিনীপুর জেলা নিয়ে গঠিত ছিল।

প্রাচীনকালে এই হাওড়া জেলায় ছিল ভুরশুট রাজ্য। এটি ছিল অধুনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের হাওড়া ও হুগলি জেলার অন্তর্গত একটি প্রাচীন ও মধ্যযুগীয় রাজ্য। রাঢ় অঞ্চলের দক্ষিণাঞ্চলে ভুরশুট রাজ্যটি স্থাপিত হয়েছিল। এই রাজ্যের অধিবাসীরা ‘ভুরিশ্রেষ্ঠী’ নামে পরিচিত ছিল। এরা ছিল মূলত বণিক। এদের নামানুসারেই রাজ্যের নামকরণ হয় ‘ভুরশুট’।ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে বালি বিধানসভা কেন্দ্রটি বালি পুরসভার অন্তর্গত। বালি বিধানসভা কেন্দ্রটি ২৫ নম্বর হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বৈশালী ডালমিয়া জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৫২,৭০২৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন সিপিএম প্রার্থী সৌমেন্দ্রনাথ বেরা। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৩২,২৯৯৷ তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বৈশালী ডালমিয়া তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিএম প্রার্থী সৌমেন্দ্রনাথ বেরাকে ১৫,৪০৩ ভোটে পরাজিত করেছিলেন।

২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের কণিকা গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের রেখা রাউত, ২০০১ সালে কংগ্রেসের সুপ্রিয় বসু ও ১৯৯৬ সালে কংগ্রেসের বাণীকুমার সিংকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৯১ সালে সিপিআইএমের পতিতপবন পাঠক এই আসনে কংগ্রেসের সুপ্রিয় বসুকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৮৭ সালে কংগ্রেসের সুপ্রিয় বসু সিপিআইএমের পতিতপবন পাঠককে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৮২ সালে পতিতবাবু কংগ্রেসের বাণীকুমার সিং ও ১৯৭৭ সালে কংগ্রেসের গণেশ পাঠককে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৭২ সালে কংগ্রেসের ভবানীশংকর মুখোপাধ্যায় এই আসনে জিতেছিলেন।আবার ১৯৬৯ ও ১৯৭১ সালে সিপিআইএমের পতিতপবন পাঠক জয়ী হয়েছিলেন। তারও আগে ১৯৬৭ সালে কংগ্রেসের এস এন মুখোপাধ্যায় এই আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৬২ সালে কংগ্রেসের শংকরলাল মুখোপাধ্যায় জিতেছিলেন। আবার ১৯৫৭ সালে কংগ্রেসের মণিলাল বসু এই আসনে জিতেছিলেন। দেশের প্রথম নির্বাচনে কংগ্রেসের রতনমণী চট্টোপাধ্যায় বালি আসন থেকে জয়লাভ করেছিলেন।

বন্ধ করুন