বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Indian Idol-র আগেই ‘সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পে’ সকলের মন কেড়েছিলেন বনগাঁর অরুণিতা
অরুণিতা।
অরুণিতা।

Indian Idol-র আগেই ‘সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পে’ সকলের মন কেড়েছিলেন বনগাঁর অরুণিতা

ছোট থেকেই একের পর এক প্রতিযোগিতায় বিচারক থেকে দর্শক, সকলের মন কেড়েছেন। 

‘ইন্ডিয়ান আইডল ১২’-র ট্রফি না পেলেও, গায়িকি দিয়ে সকলের মন জয় করে নিয়েছেন অরুণিতা কাঞ্জিলাল। পবনদীপ রাজন প্রথম স্থানে ও তিনি দ্বিতীয়, এটা মনে ধরেনি অনেকেরই। তাঁরা জানিয়েছেন, সেরার সেরা অরুণিতা। কোনও তুলনাই হয় না বাংলার মেয়ের। এমনকী, টুইটারে পবনদীপকে অরুণিতার নখের যোগ্য না বলেও মন্তব্য করা হয়েছে। আর এসবের মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল বেশ পুরনো একটা ভিডিও। ছোটবেলায় ‘সারেগামাপা লিটল চ্যাম্প’-এর মঞ্চে গান গেয়েছিল খুদে অরুণিতা। সেই ভিডিও আরও একবার মন কেড়ে নিল সকলের। 

২০১৩ সালে বাংলা ‘সারেগামাপা লিটল চ্যাম্প’ অংশগ্রহণ করেছিলেন অরু। এখানে তিনি বিজয়ীও হয়েছিলেন। বিচারকের আসনে ছিলেন হৈমন্তী শুক্লা, জয় সরকার, মহালক্ষ্মী আইয়ার। তারপর ২০১৪ সালে হিন্দি ‘সারেগামাপা লিটল চ্যাম্প’-এ অংশগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু এই সফরে তাঁর জয় হয়নি। সম্প্রতি এই শোয়ের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, তখন অরুণিতার বয়স মাত্র ১১।

ভিডিওতে খুদে অরুণিতাকে ‘মেরে সায়া’ গানটি গাইতে শোনা যাচ্ছে। অরুণিতার গানের প্রতিভাকে প্রশংসা জানিয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী মোনালি ঠাকুরও। আর মহাগুরু অরুণিতার গান শুনে অন্যান্য প্রতিযোগীদের বলেন, ‘অরুণিতার থেকে সাবধান, ও কিন্তু দারুণ পারফরমার’।

‘ইন্ডিয়ান আইডল’-র মঞ্চে থাকাকালীন হিমেশ রেশামিয়ার দু'টি গানে প্লেব্যাক করেছেন তিনি। আপাতত বলিউড আর টলিউড ছবিতে কাজ করার জন্য নিজেকে তৈরি করছেন। শোয়ে বারবার জানিয়েছেন ছোট থেকেই গানের জগতে আসার স্বপ্ন দেখতেন। আর যা পূরণ করতে সাহায্য করেছে তাঁর গোটা পরিবার। বাবা-মা-র সাহায্য ছাড়া আজ এই জায়গায় পৌঁছতে পারতেন না!

বন্ধ করুন