বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘অভিনয় ১০০ মিটার দৌড় নয়, যে আপনাকে ফার্স্ট হতে হবে’: পঙ্কজ ত্রিপাঠি
পঙ্কজ ত্রিপাঠী (HT_PRINT)
পঙ্কজ ত্রিপাঠী (HT_PRINT)

‘অভিনয় ১০০ মিটার দৌড় নয়, যে আপনাকে ফার্স্ট হতে হবে’: পঙ্কজ ত্রিপাঠি

  • 'সোশ্যাল মিডিয়ার মতো করে আপনার চলবার দরকার নেই, আপনি নিজের মতো করে চলুন', বাউন্স ব্যাক ভারতে বার্তা ‘কালীন’ ভাইয়ার। 

এই মুহূর্তে বলিউডের অন্যতম ভার্সাটাইল অভিনেতা পঙ্কজ ত্রিপাঠির জন্মদিন। অন্য ধারার ছবি থেকে বাণিজ্যিক ফিল্ম, সাড়া ফেলে দেওয়া পার্শ্ব চরিত্র থেকে প্রধান আকর্ষণ - সবেতেই পরিচালকের ট্রাম্প কার্ড হওয়ার রাখেন এই অভিনেতা। রুপোলি পর্দার পাশাপাশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন পঙ্কজ।

ফিবার এফএমের উদ্যোগে আয়োজিত ‘বাউন্স ব্যাক ভারত ফেস্ট’ (Bounce Back Bharat Fest)-এর দ্বিতীয় দিনে অংশ নিলেন পঙ্কজ ত্রিপাঠি। এদিন অনুরাগীদের প্রশ্নের অকপটে জবাব দিলেন অভিনেতা। তাঁদের জীবনের নানান সমস্যার ‘মুশকিল-আসান’-এর ভূমিকা পালন করেন পঙ্কজ। 

জীবনে বহুবার রিজেকশনের মুখে পড়েছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠি। তবুও হার মানেননি, সেই জীবন দর্শন নিয়ে তিনি অকপটে বলেন, ‘আত্মসম্মান আর ইগোর ফারাক আমরা নিজেরাই বুঝতে পারি না। ক্রোধ এমন একটা জিনিস যাতে আপনার নিজের ক্ষতি সবচেয়ে বেশি হয়। প্রত্যাখ্যাত হলে রাগ করবেন না, বরং খেয়াল রাখবেন সেটা যেন আপনাকে আরও শক্তিশালী করে’। 

মনোজ বাজপেয়ীর এই অন্ধভক্ত পঙ্কজ, কিন্তু তাঁর অভিনয়ের মধ্যে বরাবর নিজস্বতা বজায় থেকেছে।কীভাবে কারুর দ্বারা অনুপ্রাণিত হলেও নিজের মৌলিকতা বজায় রাখতে হবে, তা এদিন শেয়ার করেন পঙ্কজ। তিনি বললেন, ‘গুরু আপানাকে পথ দেখায়, সেই পথে আপনি চলবেন ঠিকই কিন্তু চলার পথে কোথায় থামবেন,কোথায় বিশ্রাম করবেন সেই সিদ্ধান্ত আপনার। গুরু মার্কেটে অলরেডি রয়েছে, তাঁর কপি হয়ে লাভ নেই’। অভিনয় এমন এক পেশা সেখানে শেখবার কোনও শেষ নেই। প্রতিমুহূর্ত তিনি শিখছেন জানান তিনি। ‘অভিনয় কোনও ১০০ মিটারের রেস নয়, যে আপনাকে ফার্স্ট হতে হবে। আপনাকে কারুর কাজ থেকে ঈর্ষান্বিত হলে চলবে না, বরং তোমার মধ্যে কোন জিনিসটা নেই তা খুঁজে বার করতে হবে। নিজেকে ঘষে-মেজে পরিণত করতে হবে। অভিনয় একটা শিল্পা, এখানে শেখার কোনও শেষ নেই’।

জীবনে বাউন্স ব্যাক করাটা সহজ নয়, তবে মানুষের ধর্মই হল সব প্রতিবন্ধকতাকে কাটিয়ে লড়াই জারি রাখা, মত পঙ্কজের। সোশ্যাল মিডিয়া নিয়েও এদিন নিজের রায় রাখেন অভিনেতা। তাঁর কথায়, ‘কারুর ১৫ মিলিনয় ফলোয়ার আর পাঁচ হাজার ফলোয়ার মানে, আমি তার চেয়ে কোনও অংশ কম সেটা ভাবলে চলবে না। ১০ হাজার ফলোয়ারের চেয়ে এমন দু’জন ফলোয়ার থাকা বেশি কাঙ্ক্ষিত যাঁরা প্রকৃতঅর্থে আপনাকে বুঝবে, আপনার ভাবনাকে সম্মান জানাবে। সোশ্যাল মিডিয়ার মতো করে আপনার চলবার দরকার নেই, আপনি নিজের মতো করে চলুন'। 

বন্ধ করুন