বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'সবাই সব জানে...', বয়কট বলিউড নিয়ে বিজেপির আইটি সেলকে আক্রমণ কংগ্রেস সাংসদের

'সবাই সব জানে...', বয়কট বলিউড নিয়ে বিজেপির আইটি সেলকে আক্রমণ কংগ্রেস সাংসদের

প্রবীণ কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিংভি 'বয়কট বলিউড' ট্রেন্ড নিয়ে ঠুকলেন বিজেপিকে। 

পাঠান, পদ্মাবত-সহ বহু সিনেমা এর আগে বয়কট বলিউডের শিকার হয়েছে। সম্প্রতি এই নিয়ে বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপালেন কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি। 

কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি শনিবার ‘বয়কট বলিউড’ ট্রেন্ড নিয়ে আঙুল তুললেন বিজেপির দিকে। তাঁর দাবি সুনীল শেট্টির এই প্রসঙ্গে যোগী আদিত্যনাথের কাছে হস্তক্ষেপের অনুরোধই ‘সিওর-শট সাইন’ যে এসবের পিছনে হাত রয়েছে বিজেপি আইটি সেলের। ভারতীয় জনতা পার্টির তরফেই জনপ্রিয় মতামত হিসেবে তা প্রচার করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ইউপি-র মুখ্যমন্ত্রী যোগীর সঙ্গে দেখা করে বয়কট বলিউড ট্রেন্ড নিয়ে কথা বলেন সুনীল শেট্টি।

কংগ্রেসের এই সাংসাদ বিজেপির আইটি সেল ‘জনপ্রিয় মতামতের ছদ্মবেশ’ নিচ্ছে বলে মত প্রকাশ করেন। টুইটারে লেখেন, ‘সুনীল শেট্টির যোগী আদিত্যনাথকে বয়কট বলিউড ট্রেন্ড নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার জন্য অনুরোধ করা একটি সিওর-শট সাইন যে সবাই বুঝে গিয়েছে এই হ্যাশট্যাগটি কোথা থেকে আসছে এবং কে এই ধরনের প্রবণতাগুলি ছড়িয়ে দিচ্ছে৷ এটা বিজেপির আইটি সেল যারা জনপ্রিয় মতামতের ছদ্মবেশে এসব করছে।’

৫ জানুয়ারি বলিউডের কিছু তারকার সঙ্গে কথা বলেন যোগী। সেখানেই উপস্থিত ছিলেন সুনীল শেট্টি। তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘যে হ্যাশট্যাগটি চলছে, বলিউড বয়কট করুন, এটা বন্ধ হতে পারে আপনার কথায়। আমরা ভালো কাজ করছি এই কথাটি ছড়িয়ে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। পচা আপেল সর্বত্র আছে, কিন্তু শুধুমাত্র এই কারণে আপনি পুরো শিল্প জগতকে পচা বলতে পারবেন না। আজ মানুষ মনে করে বলিউড ভালো জায়গা নয়, কিন্তু আমরা এখানে এত ভালো ভালো ছবি বানিয়েছি। আমাদের একসঙ্গে আসতে হবে এবং কীভাবে ‘বয়কট বলিউড’ হ্যাশট্যাগ থেকে মুক্তি পেতে পারি, সেদিক নিয়ে ভাবতে হবে… আপনি যদি নেতৃত্ব দেন তবে এটি অবশ্যই ঘটতে পারে। এটা ভাবলেই খারাপ লাগে যে আমাদের উপরে এরকম কলঙ্ক লেগেছে, এদিকে ইন্ডাস্ট্রির ৯৯ শতাংশ লোকই এমন নয়। ভারতকে যদি কিছু বাইরের দেশের সঙ্গে জুড়ে রাখে তাহলে তা আমাদের সিনেমাই। সুতরাং যোগীজি আপনি যদি নেতৃত্ব দেন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এই নিয়ে কথা বলেন তাহলে তা অবশ্যই একটা বড় ফারাক আনবে।’

এই বৈঠকের একদিন পরেই সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব বিজেপিকে আক্রমণ করেছিলেন নিজেদের রাজনৈতিক মতাদর্শকে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য সিনেমাকে ব্যবহার করা নিয়ে। নিজের কথায় শাহরুখ-দীপিকার পাঠান-এর প্রসঙ্গ টেনেছিলেন তিনি। উল্লেখ করেছিলেন কীভাবে বেশরম রং-এ অভিনেত্রীর গেরুয়া বিকিনির কারণে সিনেমা বয়কটের কথা বলেছে খোদ মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র।

 

বন্ধ করুন