বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'আমি হাল ছাড়িনি', পরপর প্রিয়জনের মৃত্যু, কঠিন সময়ে পজিটিভ থাকার চেষ্টায় মিমি!
 মিমি চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
 মিমি চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

'আমি হাল ছাড়িনি', পরপর প্রিয়জনের মৃত্যু, কঠিন সময়ে পজিটিভ থাকার চেষ্টায় মিমি!

  • চিকুর পর ঠাকুমাকে হারালেন মিমি, অসুস্থ তাঁর তিন মাসের ‘সন্তান’ জুনিয়ার চিকুও।

কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। মাসখানেক আগেই সন্তানসম চারপেয়ে সন্তানকে হারিয়েছেন সাংসদ।সেই শোক কাটিয়ে উঠবার আগেই ফের প্রিয়জনকে হারিয়ে ফেলার ধাক্কা। শনিবার দীর্ঘ ইনস্টাগ্রাম বার্তায় অভিনেত্রী জানালেন জীবনের কোন কঠিন সময়ের মুখোমুখি তিনি। তবুও হাল না ছেড়ে পজিটিভ থাকবার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, কারণ তিনি হারতে শেখেননি, হাল ছাড়তে শেখেননি। 

আসলে পজিটিভ থাকাটা একটা অভ্যাস, সেই অভ্যেসটা অর্জন করার বিদ্যায় বেশ পারদর্শী মিমি। কিন্তু কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে লড়তে লড়তেও মানসিক ক্লান্তি আসে।সেই ক্লান্তির কথাই ধরা পড়ল অভিনেত্রীর ইনস্টাগ্রাম পোস্টে। সম্প্রতি ভুয়ো ভ্যাকসিন ক্যাম্পে প্রতারণার শিকার হয়েছেন মিমি, এরপর অভিনেত্রী নিজেও অসুস্থ হয়ে পড়েন গত শনিবার। এখন অনেকটাই সুস্থ। এদিন মিমি জানালেন গত মাসে ঠাকুমাকে হারিয়েছেন তিনি, পরিস্থিতির চাপে শেষ বিদায়ও জানাতে পারেননি। পাশাপাশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তাঁর বাবা, যদিও এখন সেরে উঠেছেন। 

এদিন মিমি লিখেছেন, ‘বন্ধুরা বলে আমি খুব পজিটিভ। আমি নিজেও সেটা বিশ্বাস করি। অন্ধকারেও আলো খুঁজি কারণ আমি বিশ্বাস করি আলোর দেখা মিলবেই। কারও সঙ্গে দেখা হলে হেসে কথা বলার চেষ্টা করি। কারণ হাসি বা জড়িয়ে ধরা কাউকে কষ্ট দেয় না। কিন্তু আজ যদি পজিটিভ না থাকতে পারি, না হাসতে পারি, আলো দেখতে না পাই… যদি এইবার আমি হেরে যায়… '

'…..আমার সন্তানকে (পড়ুন পোষ্য চিকু) হারিয়েও আলো খুঁজেছি। আমি জানি অন্য পৃথিবীতে ওর সঙ্গে দেখা হবে। বাবার যখন কোভিড হয়েছিল (এখন ভাল আছেন) তখনও আলোর সন্ধান করেছি, গত মাসে ঠাকুমা চলে গেলেন, আমি শেষ বিদায়ও জানাতে পারিনি। আর এখন আমার তিন মাসের সন্তান (অর্থাৎ পোষ্য) অসুস্থ। বলুন তো এবার কোথায় আলো খুঁজব? তবে আমার বিশ্বাস হয়ত আমি শুধু সেই আলো দেখতে পাচ্ছি না, তবে আমি হাল ছেড়ে দিইনি, দেব না।’

মিমির ইনস্টাগ্রাম স্টোরি
মিমির ইনস্টাগ্রাম স্টোরি

গতকালই (শুক্রবার) ইনস্টাগ্রামে জুনিয়ার চিকুর অসুস্থতার কথা জানান মিমি, তবে ঠিক কী হয়েছে এই খুদে সারমেয়র তা স্পষ্ট করে জানাননি অভিনেত্রী। গত এপ্রিলেই চিকুকে হারান মিমি, ফেব্রুয়ারি মাসেই ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিল মিমির পোষ্য। মে মাসেই মিমির কোল আলো করে আসে জুনিয়ার চিকু। কিন্তু তাঁর অসুস্থতার খবরে স্বাভাবিকভাবেই মন ভেঙেছে অভিনেত্রীর, তবে এই কঠিন সময়ে পাশে থাকবার জন্য বন্ধু অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মিমি। 

বন্ধ করুন