বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Brahmastra: আলিয়ার মুখে শিবা ডাক শুনে কান পচেছে সবার! কেন এই কীর্তি ইশার? জবাব অয়নের
সাফাই দিলেন অয়ন (ছবি-ইনস্টাগ্রাম ও এএনআই)

Brahmastra: আলিয়ার মুখে শিবা ডাক শুনে কান পচেছে সবার! কেন এই কীর্তি ইশার? জবাব অয়নের

  • Alia-Ranbir: ‘খালি শিবা আর শিবা'!'ব্রহ্মাস্ত্র' ছবিতে আলিয়া কেন বারবার রণবীরের নাম নিয়ে চিৎকার করেছে? জবাব দিলেন অয়ন। পাশাপাশি বাস্তব জীবনে কি রণবীরকে নাম ধরে বারেবারে ডাকেন আলিয়া? 

সারা বিশ্বে কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’, দু-হাতে টাকা কামাই হচ্ছে প্রযোজক করণ জোহরের। তবুও এই ছবি ঘিরে সমালোচনা থামছে না। প্রথম দিন থেকেই ‘ব্রহ্মাস্ত্র’-এর একটি বিষয় নিয়ে হাসির রোল উঠেছে। ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমায় কতবার রণবীরকে ‘শিবা’ বলেছেন আলিয়া? তা গুনতে ব্যস্ত নেটিজেনদের একাংশ। অনেকের কান পচে গিয়েছে এই শিবা ডাক শুনে।

এরই মাঝে চাঁদনি নামের এক তরুণীর এক ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে, যিনি আলিয়ার গলা নকল করে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবিতে নায়িকার সংলাপ আওড়েছেন। আর একথা সবার জানা আলিয়ার প্রায় সব সংলাপেই ছিল ‘শিবা’। এই ভিডিয়োয় প্রতি বাক্যেই ‘শিবা’ নামের পুনরাবৃত্তি করতে দেখা গিয়েছে এই ইনস্টাগ্রাম ইনফ্লুয়েন্সারকে। চাঁদনির এই ভিডিয়ো সুপার ভাইরাল। এই ভিডিয়ো মিমের আকারে ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। সেই ভাইরাল ভিডিয়ো প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন স্বয়ং ছবির পরিচালক তথা চিত্রনাট্যকার অয়ন মুখোপাধ্যায়।

আলিয়া জানাব চাঁদনির ভিডিয়োটি তাঁর কাছে মজাদার, সেটাকে ‘ট্রোলিং’ বলে মানতে না-রাজ হবু মা। অন্যদিকে যার নাম ধরে এত্তো ডাকাডাকি সেই রণবীর কাপুর এবং অনয় মুখোপাধ্যায়ও ব্যাখা দিয়েছেন এই বিষয়টি নিয়ে। রণবীর জানান, ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ টিমের একটি গ্রুপ চ্যাট রয়েছে যার নাম ‘ব্রহ্মাস্ত্র ফিডব্যাক’। যেখানে সবাই প্রতিক্রিয়া, মিম,সমলাোচনা- সব শেয়ার করে। এটা বেশ মজাদার ব্যাপার বলেই মনে করেন রণবীর।

এনডিটিভি-কে আলিয়া জানান, ‘আমার সবচেয়ে ফেবারিট হল চাঁদনির ভিডিয়োটা, ওই মেয়েটি আমাকে খুব সুন্দর নকল করে। খুবই ভালোভাবে করে। ও ব্রহ্মাস্ত্র নিয়ে একটা মিম বানিয়েছে, যেখানে বারবার ও শিবার নাম নিচ্ছে- সেটা বেশ দুর্দান্ত’। অয়ন সাফাই দিয়ে বলেন, ‘মানুষজন এত্তো হাসহাসি করছে। তবে ব্যাপারটা হল আমি যখনন কথা বলি, তখন বড্ড বেশি মানুষজনের নাম নিই। এটা আমার স্বভাব, সেটার প্রতিফলনই চিত্রনাট্যে ধরা পড়েছে’।

রণবীর জানান, শ্যুটিং-এর সময় এই বিষয়টা নিয়ে অয়নের কাছে প্রশ্ন রেখেছিলেন তিনি। তবে পরিচালক জানান ‘যখন তুমি কারুর প্রেমে পড়ো, তখন সেই মানুষটার তুমি বারবার উচ্চারণ কর, সেটাই স্বাভাবিক’। যদিও বাস্তবজীবনে একদম উলটো রণবীর-আলিয়া। পরস্পরের নাম নিয়ে এভাবে একদম ডাকাডাকি করেন না তাঁরা, সেকথাও স্পষ্ট করেছেন দুজনে। বরং একজন অন্যের নাম নিলে খানিক চিন্তা বেড়ে যায়, কোথায় কী ভুল হল?

প্রসঙ্গত, মুক্তির ১০দিনের মধ্যেই দেশের বক্স অফিসে ২০০ কোটির গণ্ডি পার করে ফেরছে এই ছবি।

বন্ধ করুন