বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Parambrata Chatterjee: 'আমরা এটাই চেয়েছিলাম', ‘সাবাশ ফেলুদা’র ট্রোলিং নিয়ে কেন এমন বললেন পরম

Parambrata Chatterjee: 'আমরা এটাই চেয়েছিলাম', ‘সাবাশ ফেলুদা’র ট্রোলিং নিয়ে কেন এমন বললেন পরম

সাবাশ ফেলুদার ট্রোলিং নিয়ে পাল্টা জবাব পরমের

Parambrata Chatterjee: পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় অভিনীত ‘সাবাশ ফেলুদা’ গত মাসেই মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু সেই সিরিজের ট্রেলার থেকে শুরু করে অভিনয়, স্ক্রিপ্ট, মেকআপ সবটা নিয়েই দারুণ সমালোচনা এবং ট্রোলিং হয়। কেউ কেউ যদিও প্রশংসাও করেছিলেন। এবার গোটা বিষয়ে মুখ খুললেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, টোটা রায়চৌধুরী, আবির চট্টোপাধ্যায়, ইন্দ্রনীল সহ বাংলার বহু অভিনেতা নানা সময় বাঙালির অতি প্রিয় এবং কাছের গোয়েন্দা চরিত্র ‘ফেলুদা’ ওরফে প্রদোষ চন্দ্র মিত্রের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। কেবল বাঙালি নন, অবাঙালি বহু অভিনেতাকেও সত্যজিৎ রায় সৃষ্ট এই চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে নানা সময়ে। এবার তাতে নবীনতম সংযোজন হিসেবে নাম যোগ হয়েছে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের। গত মাসেই মুক্তি পেয়েছে অরিন্দম শীল পরিচালিত এবং পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় অভিনীত সিরিজ ‘সাবাশ ফেলুদা’।

ফেলুদা গল্পের ‘গ্যাংটকে গন্ডগোল’ গল্পের উপর ভিত্তি করে এই ছবি বানানো হয়েছে। কিন্তু এই সিরিজের ট্রেলার, টিজার মুক্তি পাওয়ার সময় থেকে সিরিজে অভিনয় থেকে মেকআপ সব কিছু নিয়েই নানা সময়ে চলেছে জোর চর্চা। চরম কটাক্ষ এবং সমালোচনার মধ্যে পড়তে হয়েছে সিরিজ নির্মাতা এবং অভিনেতাদের। এবং সেই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন খোদ পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে নিজের মতামত জানালেন এই ট্রোলিং নিয়ে।

গত ৫ মে জি ফাইভে মুক্তি পায় অরিন্দম শীল পরিচালিত ‘সাবাশ ফেলুদা’। সেই সিরিজ নিয়ে বিস্তর কাটাছেঁড়া চলেছে সমাজ মাধ্যমে। অভিনেতাদের পড়তে হয়েছে কঠোর সমালোচনার মধ্যে। সদ্য ভ্যারাইটিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে পরমব্রত সেই প্রসঙ্গে কথা বললেন। অভিনেতার মতে, 'দর্শকরা পুরোপুরি দুটো ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছিলেন।'

পরমের কথা অনুযায়ী, 'একদিকে আমরা যেমন প্রশংসা পেয়েছি। তেমনই বহু সমালোচনা, কটাক্ষের শিকার হয়েছি। কিন্তু আমরা মানসিক ভাবে এটার জন্য প্রস্তুত ছিলাম, কারণ ফেলুদা চরিত্রটাই এক আইকনিক চরিত্র বাঙালিদের কাছে। ফেলুদার সঙ্গে বাঙালিরা নিজেদের এক অদ্ভুত যোগ খুঁজে পায়। ফেলুদার সাফল্যে মধ্যে দিয়ে নিজেদের আনন্দ খুঁজে পায়।' তিনি আরও বলেন এই বিষয়ে, 'তবে এই কটাক্ষ একপ্রকার শাপে বর হয়েছে আমাদের জন্য। সিরিজটা ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়, বহু সংখ্যক মানুষ এই বিতর্কের পর সেটা আরও বেশি মাত্রায় দেখতে শুরু করেন। এটা একটা অবশ্যই ভালো দিক। যদিও অনেকেই এই সিরিজকে নিয়ে নানা কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেছেন, আবার তেমনই অনেকে এটার প্রশংসা করেছেন। কিন্তু যাই হোক ভালো মন্দ মিশিয়ে এনগেজমেন্ট অনেক বেশি ছিল। আর আমরা সেটাই চেয়েছিলাম।'

প্রথম গোল বাঁধে যখন এই ছবির টিজার মুক্তি পায়। এই সিরিজের চরিত্রায়ন কারও পছন্দ হয়নি। তারপর যত সময় গড়িয়েছে, সিরিজ মুক্তি পেয়েছে এই ট্রোলিং এর সংখ্যা আরও বেড়েছে।

প্রসঙ্গত পরমব্রতর সঙ্গে ফেলুদার যোগ বহু পুরনো। এর আগে তাঁকে তোপসের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল। পরমব্রত টলিউড, বলিউড দুই জায়গাতেই সমান তালে তাল মিলিয়ে কাজ করে চলেছেন। বলি পাড়ায় ইতিমধ্যেই তিনি ‘কাহানি’, ‘পরী’, ‘বুলবুল’ ইত্যাদির মতো প্রজেক্টে কাজ করেছেন। আগামীতে তাঁকে অনুষ্কা শর্মার ‘চাকদা এক্সপ্রেস’-এ দেখা যাবে।

বন্ধ করুন