বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বই এগিয়ে না সিনেমা? 'থ্রি ইডিয়টস' নিয়ে মাধবন-চেতনের তুমুল ঝগড়া!
আর মাধবন ও চেতন ভগত

বই এগিয়ে না সিনেমা? 'থ্রি ইডিয়টস' নিয়ে মাধবন-চেতনের তুমুল ঝগড়া!

  • বই এগিয়ে না সিনেমা? সেই নিয়েই চলল কথা কাটাকাটি। 

তুমুল কথাকাটাকাটি আর মাধবন ও চেতন ভগতের মধ্যে! টুইটারে পরস্পরকে কার্যত ধুয়ে দিলেন দুজনেই। ছবি বনাম বই, এই নিয়ে ঝগড়া জুড়ে দিলেন দুই তারকা। লেখক আর অভিনেতা দুজনেই এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে না-রাজ। এদিন চেতন দাবি তোলেন বই আর সিনেমার মধ্যে তাঁর লেখনিই সেরা কারণ সিনেমা তৈরি হয় তাঁর গল্পকে ঘিরে। এরপরই পালটা জবাব দেন মাধবন। তাঁর কথায়, ‘আমার তো মনে হয় চেতন বইয়ের চেয়ে ছবি এগিয়ে’। এরপরই লেখক চেতন ভগত ফলোয়ার্সদের কাছে প্রশ্ন রাখেন, ‘তোমরা কি কখনও এমন কোনও সিনেমার নাম শুনেছো যা বইয়ের (যার ভিত্তিতে সিনেমাটি তৈরি) থেকে বেশি ভালো?’ মাধবন চটপট জবাব দেন, ‘হ্যাঁ, শুনেছি তো… থ্রি ইডিয়টস’। 

চেতন ভগতের লেখা ‘ফাইভ পয়েন্ট সামওয়ান’ উপন্যাস অবলম্বনে লেখা হয়েছে রাজ কুমার হিরানির থ্রি ইডিয়ট-এর কাহিনি। এই ছবির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ আর মাধবন। ফারহান কুরেশির চরিত্রে মাধবনকে ছবিতে দেখা গিয়েছে। এই জবাব মোটেই পছন্দ হয়নি চেতন ভগতের। তিনি ‘মুখ সামলে কথা’ বলতে অনুরোধ করেন মাধবনকে। এরপরই মাধবন প্রশ্ন রাখেন চেতন ভগতের এতোই যখন সমস্যা সিনেমা নিয়ে তাহলে কেন মাধবনের সঙ্গে তিনি ‘ডিকাপলড’-এ অভিনয় করলেন? এই প্রশ্নের চাঁচাছোলা জবাব দেন লেখক। তাঁর কথায়, ‘আমি পান মশলা ব্র্যান্ডেড অ্যাওয়ার্ড শো-র চেয়ে পুলিত্জার পুরস্কার পছন্দ করি’। খোঁচা দিতে ছাড়েননি মাধবনও, তিনি বলেন ‘আমি তো যে কোনওদিন বেস্টসেলার হওয়ার চেয়ে ৩০০ কোটির ক্লাব পছন্দ করি’। 

কিন্তু আদতে এই ঝগড়া পুরোটাই লোকদেখানো, আর নাটক! আসলে নেটফ্লিক্সের শো ‘ডিকাপলড’-এর প্রচারেই ‘মিছিমিছি’ টুইটার যুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন দুজনে। সিরিজে দেশের দ্বিতীয় বেস্টসেলার লেখকের চরিত্রে রয়েছেন মাধবন, অন্যদিকে নিজের চরিত্রেই পর্দায় দেখা গিয়েছে চেতন ভগতকে। দুই লেখকের টক্কর এবার পর্দা ছেড়ে টুইটারে.. কিন্তু পুরোটাই প্রমোশন্যাল গিমিক ছাড়া আর কিছুই নয়!

টুইটারে নিজেদের ঝগড়া শেষমেষ মিটিয়ে নেন দুজনে। এমনকি মাধবনের টুইট লেখনির তারিফ করেন চেতন, বলেন ‘লেখক হিসাবে পুরো নম্বর নিয়ে পাশ করতে এটা কোনও পরীক্ষা হলে’। অন্যদিকে মাধবনও বলেন, ডিকাপলড-এ ‘দুর্দান্ত’ অভিনয় করেছেন চেতন। তবে সব শেষেও মাধবন মনে করিয়ে দেন, ‘চেতন তুমি পর্দায় বেশি ভালো ছিলে, ঠিক যেমনটা তোমার বই হয়ে থাকে’। 

 

 

বন্ধ করুন